বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০   Thursday, 2 April 2020.  



 অর্থনীতি


আমাদের প্রতিদিন

 Mar-17-2020 08:36:21 PM


 

No image


একরাম তালুকদার, দিনাজপুর:

বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রভাব পড়েছে ধানের জেলা দিনাজপুরের চালের বাজারেও। গত কয়েকদিনে দিনাজপুরে বাজারে অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে চাল বিক্রি। আর বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে বাজারে প্রতি কেজি চালের দাম বেড়েছে ৫ থেকে ৭ টাকা এবং ৫০ কেজির প্রতিবস্তা চালের দাম বেড়েছে ২৫০ থেকে ৪শ টাকা পর্যন্ত। 

দিনাজপুর শহরের প্রধান চালের বাজার বাহাদুরবাজার এনএ মার্কেটে আজ মঙ্গলবার গিয়ে দেখা যায়, একসপ্তাহের ব্যবধানে নাজিরশাইল চাল প্রতিকেজি ৫৫ টাকা থেকে বেড়ে ৬০টাকায়, বিআর-২৮ চাল ৪০ টাকা থেকে বেড়ে ৪৫টাকায়, মিনিকেট চাল ৪৮ টাকা থেকে বেড়ে ৫৫ টাকায় এবং বিআর-২৯ জাতের চাল প্রতিকেজি ৩৬ টাকা থেকে বেড়ে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চাল ব্যবসায়ীরা জানান, এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিবস্তা (৫০ কেজি) চালের দাম বেড়েছে ২৫০ টাকা থেকে ৪শ টাকা পর্যন্ত। তারা জানান, নাজিরশাইল চাল প্রতিবস্তা (৫০ কেজি) ২ হাজার ৭৫০ টাকা থেকে বেড়ে ৩ হাজার টাকায়, বিআর-২৮ চাল ১ হাজার ৯শ টাকা থেকে বেড়ে ২ হাজার ১৫০ টাকায়, মিনিকেট চাল ২ হাজার ৩শ টাকা থেকে বেড়ে ২ হাজার ৭শ টাকায়, বিআর-২৯ চাল ১ হাজার ৮শ থেকে বেড়ে ২ হাজার টাকায় দাঁড়িয়েছে।

ব্যবসায়ীরা জানান, করোনা ভাইরাস আতঙ্কে চাল ক্রেতারা বেশি বেশি চাল কিনে মজুদ করছে। এ কারণেই বাজারে চাল বিক্রি অস্বাভাবিকহারে বেড়েছে। আর চালের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় মিল মালিকরাও তাদের চাহিদা অনুযায়ী চাল দিতে পারছেন না। তাই বাজারে চাহিদা মেটাতে মিল মালিকদের কাছ থেকে চড়া দাম দিয়ে চাল কিনতে হচ্ছে। এ কারণেই বাজারে চালের দাম বেড়েছে। 

বাহাদুর বাজারের চাল বিক্রেতা লিয়াকত আলী জানান, আগে প্রতিদিন তিনি ১৫ থেকে ২০ বস্তা চাল বিক্রি করতেন। এখন তার প্রতিদিন চাল বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ বস্তা। তিনি জানান, আগের থেকে দ্বিগুনেরও বেশি চাল বিক্রি হচ্ছে তার। করোনা আতঙ্কে ভোক্তারা বেশি বেশি করে চাল কিনে মজুদ করায় এই বিক্রি বেড়েছে বলে জানান তিনি।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক খুচরা চাল ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করেন, চালের চাহিদা বেড়ে যাওয়ার সুযোগ নিয়ে মিল মালিকরা চালের দাম বাড়িয়ে দেয়ার জন্যই মিল মালিকদের কাছ থেকে তাদের বেশি দামে চাল কিনতে হচ্ছে। এ কারণেই বাজারে চালের দাম বেড়েছে।

এ ব্যাপারে দিনাজপুর জেলা চালকল মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ মোসাদ্দেক হুসেন জানান, বাজারে ধান কমে আসায় ধানের দাম আগের তুলনায় বেড়েছে। এই কারণেই চালের দামও কিছুটা বেড়েছে। তবে খুচরা বাজারে যে হারে চালের দাম বেড়েছে, সে হারে মিল মালিকরা চালের দাম বৃদ্ধি করেনি।

এদিকে চালের দাম অস্বাভাবিক বেড়ে যাওয়ায় বেশি দামে চাল কিনতে হিমসিম খাচ্ছে ভোক্তারা। বাহাদুর বাজারে চাল কিনতে আসা মোঃ ময়েজউদ্দীন জানান, করোনা ভাইরাসের সুযোগ নিয়ে চাল ব্যবসায়ীরাও ইচ্ছামত দাম বাড়িয়ে চাল বিক্রি করছে। এ ক্ষেত্রে বাজার নিয়ন্ত্রণে মনিটরিং ব্যবস্থা চালু করার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহŸান জানান তিনি।



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com