সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০   Monday, 24 February 2020.  



 আন্তর্জাতিক


আমাদের প্রতিদিন

 Jan-31-2020 08:36:33 PM


 

No image


ঢকা অফিস:

দীর্ঘ ৪৭ বছর পর ইউরপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে আসছে যুক্তরাজ্য। জল্পনা-কল্পনা আর টানাপোড়নের মধ্যে দিয়ে অবশেষে বিচ্ছেদের ক্রান্তিকাল ঘনিয়ে এসেছে। আর ব্রেক্সিট কার্যকর পরবর্তী সময়ে যুক্তরাজ্যের জন্য কঠিন চ্যালেঞ্জ হাতছানি দিচ্ছে।

আজ শুক্রবার স্থানীয় সময় রাত ১১টায় ইইউ'র সঙ্গে যুক্তরাজ্যের বিচ্ছেদ কার্যকর হবে। আর কার্যকর হওয়ার ঠিক এক ঘণ্টা আগে একটি ভিডিও বার্তা দেবেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

এই বিচ্ছেদ আসলে সবকিছুর শেষ নয় বরং নতুন শুরু- বলেই যুক্তরাজ্যের এই কঠিন মুহূর্তে বার্তা দেবেন বরিস জনসন। বাকি ২৭টি ইইউ দেশের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের সম্পর্ক ছিন্ন করার বিষয়টিকে তিনি ‘সত্যিকারের জাতীয় পুনর্নবীকরণ ও পরিবর্তনের একটি মুহূর্ত’ বলে উল্লেখ করেন।

যুক্তরাজ্যে একটি রূপান্তর আসছে উল্লেখ করে বরিস জনসন বলেন, ব্রেক্সিট কার্যকরের মধ্যে দিয়ে খুব দ্রæতই কিছু পরিবর্তন আসবে। এদিকে ব্রেক্সিট চুক্তি কার্যকর হলে ছোট থেকে বড় ধরনের বিভিন্ন পরিবর্তন আসবে যুক্তরাজ্যে। যেমন- ইউরোপীয় পার্লামেন্ট, পাসপোর্ট, অর্থ, বাণিজ্য ইত্যাদি ক্ষেত্রে লক্ষনীয় পরিবর্তন আসবে।

ব্রেক্সিট কার্যকর যেসব পরিবর্তন আসবে-

- ইউরোপীয় পার্লামেন্টে যুক্তরাজ্যের ৭৩ জন সদস্য আছেন যারা ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার পর তাদের সদস্যপদ হারাবেন।

- ইউরোপীয় ইউনিয়ন কাউন্সিল সামিটে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও যুক্তরাজ্যের মন্ত্রীরা আর অংশ নিতে পারবেন না। তবে বিশেষ আমন্ত্রণ বলে প্রধানমন্ত্রী অংশ নিতে পারবেন।

- দীর্ঘ ৩০ বছর পর আবার যুক্তরাজ্যের পাসপোর্টের রং পরিবর্তন হবে। ফিরে আসবে আবারও নীল রঙয়ের পাসপোর্ট।

- প্রায় ৩০ লাখ নতুন কয়েন আসবে যুক্তরাজ্যের বাজারে। যেখানে লেখা থাকবে পিস, প্রসপারিটি অ্যান্ড ফ্রেন্ডশিপ ইউথ অল নেশনস'। অথবা ব্রেক্সিট কার্যকর হওয়ার পূর্বের দিনটি অর্থাৎ ৩১ অক্টোবর লেখা থাকতে পারে।

- ২০১৬ সালে শুরু হওয়া ব্রেক্সিট ডিপার্টমেন্ট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। যেটি থেরেসা মে'র সময়কালীন চালু করা হয়েছিল।

- জার্মানি সন্দেহভাজন কাউকে যুক্তরাজ্যে প্রত্যপর্ণ করবে না। অর্থ্যাৎ সন্দেহভাজন অপরাধী যদি কেউ যুক্তরাজ্য থেকে পালিয়ে গিয়ে জার্মানিতে আশ্রয় নেয় তাহলে তাকে ফেরত পাবে না যুক্তরাজ্য।

ব্রেক্সিট কার্যকরে পরিবর্তন হবে না যা কিছু-

- যুক্তরাজ্যের নাগরিকরা ইইউভুক্ত দেশে বসবাস ও কাজ চালিয়ে যেতে পারবেন। ইইউভুক্ত অন্য দেশের নাগরিকরাও যুক্তরাজ্যে একই সুবিধা পাবেন।

- ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত অন্য দেশেগুলোতে বসবাসরত যুক্তরাজ্যের নাগরিকরা রাষ্ট্রের পেনশন সুবিধা পাবেন।

- অন্যান্য সময়ের মতো যুক্তরাজ্যের বাজেটে অবদান রাখবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

- যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ইইউ'র বাণিজ্য অব্যাহত থাকবে। একইসঙ্গে নতুন কোন ভ্যাট আরোপ হবে না।

- ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে যুক্তরাজ্যে ড্রাইভিং লাইসেন্সেরের বৈধতা থাকবে।

১৯৭৩ সালে যুক্তরাজ্য ইইউতে যোগ দেয়। তখন এটির নাম ছিল- ইইসি (ইউরোপিয়ান ইকনোমিক কম্যুনিটি)। এর লক্ষ্য ছিল সুলভ মূল্যে ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য ও অভিন্ন বাজারসুবিধা। ১৯৯৩ সালে ইইউ নিজস্ব মুদ্রা, নীতিমালা, নাগরিকদের জন্য সীমানামুক্ত বিচরণ যুক্ত করাসহ অনেকগুলো পরিবর্তন আনে। ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) হচ্ছে ২৮টি দেশের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক জোট। এ জোটের সদস্য দেশগুলো নিজেদের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য করে থাকে। এসব দেশের নাগরিকরা জোটভুক্ত যেকোনো দেশে গিয়ে থাকতে ও কাজ করতে পারেন।



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com