মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বার ২০২০   Tuesday, 1 December 2020.  



 খেলা


আমাদের প্রতিদিন

 May-02-2019 03:29:09 PM


 

No image


ক্রীড়া ডেস্ক:

১ মে বিমানবন্দরে বিমান ধরার আগে লিখলেন-‘মিশন আয়ারল্যান্ড ও বিশ্বকাপ। সবাই আমাদেরকে নিজেদের প্রার্থনায় রাখবেন।’ আয়ারল্যান্ডে পৌছে সেদিনই আবার লিখলেন-‘লড়াইটা দেশের জন্য। বাংলাদেশের জন্য।’ অফিসিয়াল ফেসবুকে এভাবে মুশফিক রহিম বিশ্বকাপে দেশবাসির কাছ থেকে শুভকামনা ও দোয়া চাইলেন। সেই সঙ্গে বড় একটা পরিবর্তনও করলেন নিজের ফেসবুকের প্রোফাইল ছবিতে। বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জার্সি গায়ে (বিসিবি যে জার্সি এখন বাতিল করেছে) নিজের নতুন ছবিটা পোস্ট করেছেন মুশফিক।
মুশফিকের সব মনোযোগ জুড়ে এখন শুধু বিশ্বকাপ আর বিশ্বকাপ। মুশফিক বিদেশ সফরে যাচ্ছেন। আর বিমানবন্দরে মুশফিকের বাবা ছেলেকে জড়িয়ে ধরে তার কপালে সম্ভাব্য সাফল্যের চুমু এঁকে দিচ্ছেন-এমন ফ্রেমের ছবি বাংলাদেশের ক্রিকেটে বেশ পরিচিত।
এবারো বিশ্বকাপ মঞ্চে যাওয়ার আগে ছেলে মুশফিক রহিমকে জড়িয়ে ধরে অমন দোয়াই করে এলেন তার বাবা। বিশ্বকাপে মুশফিকের প্রস্তুতি প্রসঙ্গে গণমাধ্যমকে তার বাবা মাহবুব হামিদ জানান-‘ও আসলে নিজের খেলার প্রতি সবসময় ভীষণ সিরিয়াস। সেই সঙ্গে ফিটনেস নিয়েও ভীষণ সচেতন। এবার তো কয়েকমাস আগে থেকে মাংস ও চিনি খাওয়া বাদ দিয়েছিলো। কোথাও দাওয়াতে যাবার আগে খোঁজ নিতো খাওয়ার মেনুতে মাংস নাই তো!’
মুশফিক বেশি কথা বলা পছন্দ করেন না। এটুকু শুনে ক্রিকেট সাংবাদিকরা অবশ্যই অবাক হবেন! কী মুশফিক কম কথা বলেন! যারা মুশফিকের সংবাদ সম্মেলন নিয়মিত কাভার করেন, তারা সবাই এই প্রশ্নে বিস্মিত হবেন। মুশফিকের সংবাদ সম্মেলন মানেই তো একটা প্রশ্নোওরের বিশদ ব্যাখা। একেবারে সুনিপুন বিবরণ! সংবাদ সম্মেলনে অনেক কথা বলেন মুশফিক। যা বলতে চান, তার পুরোটাই বলেন। কিন্তু সংবাদ সম্মেলনের সেটুকু সময় বাদে বাকি সময় পুরোপুরি রিজার্ভ। বলা চলে কথাই বলেন না। শুনেন বেশি। পর্যবেক্ষণ করেন আরো বেশি। নিজেকে এভাবেই গড়ে তুলেছেন। এমনকি বাসায়ও ভীষন রকম চুপচাপ মুশফিক।
অথচ এই ক্রিকেটারই মাঠে ৫০ ওভারের প্রতিটি বলেই উইকেটের পেছন থেকে বোলারদের উৎসাহ দেন। প্রায় প্রতি বলেই বোলারদের পরামর্শ দেয়ার চেষ্টা করেন। ফিল্ডিং ঠিক করেন। অধিনায়কের সঙ্গে আলাপ করেন। সারাক্ষণই ছটফটে। সাফল্যের ক্ষিদেয় ক্ষুধার্ত!

যে কোনো সিরিজ বা টুর্নামেন্টের আগে নিজের জন্য একটা লক্ষ্যস্থির করে নেন মুশফিক। এবারের বিশ্বকাপেও নিজের জন্য তেমন একটা টার্গেট সেট করেই গেছেন তিনি। সেই লক্ষ্যের পুরো বিস্তারিত বর্ণনায় না গিয়ে মুশফিক শুধু জানিয়েছেন-‘এই বিশ্বকাপে যেন সবকিছুকেই ছাড়িয়ে যেতে পারি।’

সেই ছাড়িয়ে যাওয়া, সেই ছাপিয়ে যাওয়া শুধু ব্যক্তিগত পারফরমেন্সে নয়, দলীয় সাফল্যেও এবারের বিশ্বকাপকে অবিস্মরনীয় করে রাখতে চান তিনি। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজার এটাই শেষ বিশ্বকাপ। বিদায়ী বিশ্বকাপে মাশরাফিকে একটা ভালো উপহার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন মুশফিক।

বিশ্বকাপের আসরে বাংলাদেশের হয়ে এখন পর্যন্ত সেঞ্চুরির একচ্ছত্র মালিকানা শুধু মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের। মুশফিক গেলো বিশ্বকাপে দলের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৯৮ রান করেন। তবে স্ট্রাইক রেটে তার ব্যাটিং দলের শীর্ষে। তার স্ট্রাইক রেট ছিলো সেঞ্চুরির উপরে, ১০৫.৬৭! মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ অনেকদিন ধরে বিশ্বকাপ সেঞ্চুরির ক্লাবে একমাত্র সদস্য। সেই ক্লাবে ভায়রা ভাইকে এবার সঙ্গ দিতে চান মুশফিক!



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com