সোমবার, ১৮ অক্টোবার ২০২১   Monday, 18 October 2021.  



 খেলা


আমাদের প্রতিদিন

 Oct-07-2021 03:07:09 PM


 

No image


ক্রীড়া প্রতিবেদক:

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয়। এরপর ভারতকে রুখে দিয়ে ড্র। দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে টেবিলে নেপালের (৬ পয়েন্ট) পরেই অবস্থান বাংলাদেশের। ফাইনাল খেলতে পারবে কিনা লাল সবুজরা, তা সময় বলে দেবে। তার আগে জামাল ভূঁইয়াদের জিততে হবে বৃহস্পতিবারের ম্যাচে। যেখানে প্রতিপক্ষ স্বাগতিক মালদ্বীপ। বলা যায় স্বাগতিকদের মাঠে কঠিন এক ম্যাচ হতে যাচ্ছে অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যদের জন্য। মালে জাতীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ১০ টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

আশির দশকে মালদ্বীপের বিপক্ষে বাংলাদেশের ফুটবলের সাফল্য গাঁথা রোমন্থন করেন অনেকে। ১৯৮৪ থেকে ১৯৮৫-এক বছরে তিনবার দ্বীপ দেশকে বিধ্বস্ত করা বাংলাদেশ গোল দিয়েছিল ১৩টি। নব্বইয়ের পর থেকে বদলে যায় মালদ্বীপের ফুটবল। তাদের উর্ধ্বগতির বিপরীতে তলানিতে নামতে শুরু করে বাংলাদেশ।

এক সময় যে মালদ্বীপকে কঠিন কোনো প্রতিপক্ষ মনে হতো না, সেই দলই এখন লাল সবুজের জার্সিধারীদের জন্য বড় মাথা ব্যথা। সর্বশেষ তিন ম্যাচে পর্যটনের জন্য বিখ্যাত দেশটির কাছে বাংলাদেশের অসহায় আত্মসমর্পনই বলে দিচ্ছে ফুটবলে দুই দেশের ব্যবধান। মাঠের লড়াইয়ের সঙ্গে র‍্যাংকিংয়েও ৩১ ধাপ এগিয়ে মালদ্বীপ।

পরিসংখ্যানের পাতায় মালদ্বীপের অবস্থান ঈর্ষনীয় হলেও এবার টুর্নামেন্টের পারফরম্যান্স বলছে পরিষ্কার ফেবারিট অস্কার ব্রুজোনের দল। নেপালের কাছে হার দিয়ে শুরু করে মালদ্বীপ। বিপরীতে শ্রীলংকার বিপক্ষে জয় এবং পিছিয়ে থেকেও দশজন নিয়ে ভারতের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করাটা বিপলু আহমেদ ও মতিন মিয়াদের আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছে অনেকখানি।

২০১৮ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিতেছিল মালদ্বীপ। টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়নের সঙ্গে ঘরের মাঠে খেলা বলে এবারও ফেবারিট আলি আশফাক ও আলি ফাসিররা। তবে প্রথম ম্যাচে নেপালের কাছে হারে চাপে পড়ে গেছে দ্বীপ দেশটি। টিকে থাকতে হলে বাংলাদেশের বিপক্ষে জয়ের বিকল্প নেই তাদের।

চাপে থাকা এই মালদ্বীপকে কাল সুযোগ দিতে চাইছে না বাংলাদেশ। দুই দলের মধ্যকার ১২ ম্যাচে বাংলাদেশের পাঁচ জয়ের বিপরীতে মালদ্বীপ জিতেছে চারটিতে। বাকি তিনটি হয়েছে অমীমাংষিত। তবে বাংলাদেশের জয়ের গল্পগুলো তিন যুগ আগের। সাম্প্রতিক সময়ের লড়াইয়ে মালদ্বীপের সঙ্গে পেরে ওঠছে না লাল সবুজের দলটি। ২০১৬ সালের ১ সেপ্টেম্বর প্রীতি ফুটবল ম্যাচে মালদ্বীপ দেশটির কাছে ৫-০ গোলে উড়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ।

পাঁচ বছর পর আবারও যখন মুখোমুখি দুই দেশ, তখন ইতিহাস সামনে চলে আসছে। ২০০৩ সালে প্রথম এবং একমাত্র সাফ শিরোপা বাংলাদেশ জিতেছিল এই মালদ্বীপকে হারিয়েই। আর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে দু’দলের মধ্যকার সর্বশেষ লড়াইটি হয়েছিল ২০১৫ সালে। ওই আসরে ৩-১ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ।

এসব পরিসংখ্যান শুধুই সংখ্যা হিসেবে মনে করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূইয়া। তার কথায়,‘আমি আগেও বলেছি অতীতে কি হয়েছে তা নিয়ে পড়ে থাকতে চাই না। আমরা এখানে একটা নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে এসেছি। ফাইনালের সেই লক্ষ্য পূরণ করতে হলে আমাদের পরের দুই ম্যাচেই জিততে হবে।

মালদ্বীপের সেরা ফরোয়ার্ড আশফাককে প্রতিহত করা নিয়ে অস্কার বলেন, ‘অবশ্যই তাকে নিয়ে পরিকল্পনা রয়েছে। শুধু এটুকু বলতে পারি, বাংলাদেশের সেরা রক্ষণ দেখা যাবে আগামী ম্যাচে।’

দুই হলুদ কার্ডে নিষিদ্ধ রাকিব হোসেনকে মধ্যমাঠে মিস করবে বাংলাদেশ দল। লালকার্ডে থাকা ডিফেন্ডার বিশ্বনাথ ঘোষও থাকবেন মাঠের বাইরে। তবে রাকিব ও বিশ্বনাথের বিকল্প ভেবে রেখেছেন অস্কার,‘এটা ঠিক আমরা দু’জন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে পাব না। তবে আমার কাছে তাদের বিকল্প আছে। মালদ্বীপের মাঠে খেলা, তাই বলে তারা কিন্তু এগিয়ে নেই। অবশ্যই আমরা জয়ের জন্য খেলব।’



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com