শনিবার, ৩০ মে ২০২০   Saturday, 30 May 2020.  



 বাংলাদেশ


আমাদের প্রতিদিন

 Nov-08-2019 07:25:12 PM


 

No image


দিনাজপুর প্রতিনিধি:

বাড়ি থেকে জোরপুর্বক তুলে এনে যুবলীগ কর্মী আব্দুল্লাহ আল মামুনকে কোতয়ালী থানায় এনে মারধরের অভিযোগ উঠেছে দিনাজপুর জেলা যুবলীগ সভাপতি রাশেদ পারভেজ-এর বিরুদ্ধে। আজ শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় দিনাজপুর প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন যুবলীগ কর্মী আব্দুল্লাহ আল মামুন। 
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গত ৫ নভেম্বর রাতে আনুমানিক ১০টায় তার নিজ বাড়ি দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলার রানীপুর গ্রাম থেকে জেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদ পারভেজ ও পল্লী বিদ্যুতের রিটেইনার প্রকৌশলী মাসুদ রানা শামীমসহ অজ্ঞাতনামা আরও ১০-১৫ জন মিলে জোরপুর্বক আমাকে ধরে নিয়ে এসে দিনাজপুর কোতয়ালি থানার গোলঘরে মারধর করেন। 
তিনি আরও জানান, তারা রানীরবন্দর থেকে কোতয়ালি থানায় নিয়ে আসার আগেও আমাকে বাইরে মারধর করে এবং পরে থানায় নিয়ে এসেও গোলঘরের ভেতরে আমাকে প্রচণ্ড মারধর করে। আমাকে মারধর করে আমার বিরুদ্ধেই দিনাজপুর পল্লী বিদ্যুতের রিটেইনার প্রকৌশলী মাসুদ রানা শামীম থানায় মামলা দায়ের করেন এবং থানায় আটকে রাখেন। পরের দিন ৬ নভেম্বর আদালত থেকে জামিন নিয়ে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। 
তিনি বলেন, ‘আমার এলাকায় বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার নাম করে টাকা নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে রিটেইনার প্রকৌশলী মাসুদ রানা শামীমের বিরুদ্ধে। টাকা নিয়েও বিদ্যুতের সংযোগ এলাকাবাসী না পাওয়ায় তারা আমার কাছে অভিযোগ নিয়ে আসে। আমি বিদ্যুতের সংযোগের বিষয়ে বিভিন্ন জায়গায় কথা বললে কর্তৃপক্ষ দ্রæত সংযোগ দেওয়ার আশ্বাস দেয়। পরে মাসুদ রানা শামীম বিষয়টি জেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদ পারভেজকে বললে তিনি আরও বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে আমাকে মারধর করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মামুনের স্ত্রী আকতারিনা বেগম, মো: নাজিমুদ্দীন নাজিয়া, মোঃ হবিবর রহমান, শাহিনুর ইসলাম মিলন, ই¯্রাফিল হোসেন প্রমুখ।
এ বিষয়ে পল্লী বিদ্যুতের রিটেইনার প্রকৌশলী মাসুদ রানা শামীমের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি।
তবে দিনাজপুর জেলা যুবলীগের সভাপতি রাশেদ পারভেজ বলেন, ‘আমার কাছে আব্দুল্লাহ আল মামুমের নামে বিভিন্ন জায়গায় যুবলীগের পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি ও সুবিধা নেওয়ার অভিযোগ আসছে। এজন্য আমি তাকে ডেকে কোতয়ালি থানায় সোপর্দ করি। তবে আমি তার গায়ে হাত দেইনি, আর থানার বিষয়ে তো মারধরের প্রশ্নই আসে না। এ বিষয়ে শনিবার দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানাবেন বলে জানান রাশেদ পারভেজ। 
এ বিষয়ে কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বজলুর রশিদ জানান, পল্লী বিদ্যুতের প্রকৌশলী মাসুদ রানা শামীমসহ কয়েকজন গত ৫ নভেম্বর রাতে চাঁদাবাজীর অভিযোগে আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ধৃত করে থানায় নিয়ে আসেন। এরপর আব্দুল্লাহ আল মামুনের বিরুদ্ধে ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেন মাসুদ রানা শামীম। থানার ভেতরে মারধরের বিষয়টি আমার জানা নেই এবং থানায় সোপর্দ করার সময় আব্দুল্লাহ আল মামুন মারধরের বিষয়ে পুলিশের কাছে কোন অভিযোগও করেনি। এর আগে কোথাও তাকে মারধর করা হয়েছে কি না, তা আমার জানা নেই বলে জানান পরিদর্শক বজলুর রশিদ। 
এদিকে স্বামীর উপর এই নির্যাতনের অভিযোগে চিরিরবন্দর থানায় একটি এজাহার দায়ের করেছেন যুবলীগ কর্মী আব্দুল্লাহ আল মামুনের স্ত্রী আকতারিনা বেগম। 



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com