বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল ২০২০   Thursday, 2 April 2020.  



 বাংলাদেশ


আমাদের প্রতিদিন

 Mar-25-2020 11:02:15 PM


 

No image


সবুজ আহম্মেদ, মিঠাপুকুর:

করোনা ভাইসরাসের প্রভাবে শহর হতে গ্রামগুলোতে ফিরে আসা মানুষগুলোকে নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় রয়েছে স্থানীয়রা। ভাইরাস ছড়ানোর আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন তারা। এছাড়াও, গোটা দেশ লকডাউন হওয়ার বেশ অনিশ্চতার মধ্যে পড়েছেন খেটে খাওয়া ও দরিদ্র মানুষগুলো। ঘরে বসে খাওয়ার মত চাল ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী’র টানাপোড়নে হিসাব মেলাতে পারছেন না তারা।

সরেজমিনে উপজেলার কয়েকটি গ্রাম ঘুরে কথা হয় স্থানীয়দের সঙ্গে। করোনা’র ছড়ানোর ভয় প্রত্যেকের চোখে-মুখে। দূর্গাপুর ইউনিয়নের কাঁঠালী গ্রামের আমিনুল ইসলাম বলেন, করোনা’র প্রভাবে হঠাৎ ওলট-পালট হয়ে গেছে স্বাভাবিক জীবন-যাপন। আতঙ্কে ঘরের বাইরে বের হচ্ছি না। শঠিবাড়ী বাজারের শ্রমিক রনজিৎ কুমার বলেন, যানবাহন বন্ধ থাকার কারণে ঘরে বসে থাকতে হচ্ছে। অথচ, দু’দিন খাবার মত চাল-ডাল নেই ঘরে। করোনা’র চেয়েও দুশ্চিন্তায় রয়েছি অর্থনৈতিক কষ্টে। অটো-রিক্সা চালক আলাল মিয়া বলেন, এভাবে চলতে থাকলে আমাদেরকে চরম কষ্টে দিনযাপন করতে হবে। এজন্য সরকারের সহযোগীতার কামনা করেছেন নিম্ম আয়ের মানুষগুলো। কয়েকজন শিক্ষক জানান, করোনার প্রভাব গ্রামগুলোতে খুব বেশি পড়েনি। তবে, ধিরে ধিরে সচেতন হচ্ছে তারা। বালুয়া মাসিমপুর ইউনিয়নের হামিদপুর গ্রামের এরশাদুল হক বুলবুল বলেন, বাহিরে থাকা মানুষগুলো গ্রামে ফিরে আসা ও অবাধ চলাচলা করায় আতঙ্কে রয়েছি। বেশ দুশ্চিন্তায় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে।

সন্ধ্যায় উপজেলার কয়েকটি বাজার এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বেশিরভাগ দোকানপাট খোলা রয়েছে। তবে, ক্রেতার সংখ্যা কম। চৌধুরী গোপালপুর বাজারের ব্যবসায়ি মশিয়ার রহমান বলেন, আজ ২৬ মার্চ হতে দোকান বন্ধ রাখব। দেশের স্বার্থে সকলে ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। শুকুরের হাটের মুদি ব্যবসায়ি রহিম মিয়া বলেন, নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যদ্রব্য ক্রেতার সংখ্যা বেশি। তবে, কেউ খুব বেশি কিনছেন না। অপরদিকে, বিভিন্ন এলাকায় মাইকিং করে সচেতনা সৃষ্টি করা হচ্ছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য, উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন পৃথক ভাবে সকলকে আতঙ্কগ্রস্ত না হওয়া জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com