মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বার ২০২০   Tuesday, 24 November 2020.  



 বাংলাদেশ


আমাদের প্রতিদিন

 Oct-30-2020 07:26:10 PM


 

No image


লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরে ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে যুবককে পিটিয়ে হত্যা ঘটনায় অজ্ঞাত এক হাজার জনের নাম উল্লেখ করে পাটগ্রাম থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আজ শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধায় নিহতে বড়ভাই বিপ্লব হোসেন জানান,অজ্ঞাত এক হাজার জনের নাম উল্লেখ করে পাটগ্রাম থানায় আমি বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ময়নাতদন্তের জন্য নিহত শহীদুন্নবী জুয়েলের (৪৫) দেহ পাঠানো হয়েছে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে।

এর আগে শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) দুপুর ১ টায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট টিএম এ মমিন ইসলামকে প্রধান করে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন জেলা প্রশাসক আবু জাফর। লালমনিরহাট সিআইডির এএসপি আতাউর রহমানসহ একটি দল ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) রাত ৮টায় পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী বাজারের বাসকল এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত যুবক শহিদুন্নবী জুয়েল রংপুর শহরের শালবন মিস্ত্রীপাড়া এলাকার আব্দুল ওয়াজেদ মিয়ার ছেলে। তিনি রংপুর ক্যান্টপাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সাবেক গ্রন্থাগারিক এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র। গত বছর চাকরিচ্যুত হওয়ায় মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, শহিদুন্নবী জুয়েল বৃহস্পতিবার বিকেলে সুলতান যোবাইয়ের আব্দার নামে একজন সঙ্গীসহ বুড়িমারী বেড়াতে আসেন। বিকেলে বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে আসরের নামাজ আদায় করেন তারা। নামাজ শেষে মুয়াজ্জিনকে বিভিন্ন ভাবে খারাপ গালাগালি করেন এক সময় মুয়াজ্জিন ও মসল্লিদের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তিনি নিজেকে র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে দিয়ে মসজিদে অস্ত্র আছে বলে খুঁজতে থাকেন। মসজিদে ঘরে চিল্লাচিল্লি শরু হয়। এ পর্যায়ে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে সন্দেহবশত জুয়েল ও সুলতান যোবাইয়েরকে পাশে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের একটি কক্ষে আটকে রাখে। খবর পেয়ে  সন্ধায় পাটগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউএনও, ওসি বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হন।

সন্ধ্যায় পর সময় বাড়ার সাথে সাথে ফেসবুকে ও পুরোবাজার এবাং পার্শ্ববর্তী গ্রামে গুজব ছড়িয়ে পড়ে,  যে কোরআন অবমাননার দায়ে দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। এ সময় উত্তেজিত হয়ে বিক্ষুব্ধ জনতা ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দরজা জানালা ভেঙে প্রশাসনের কাছ থেকে জুয়েলকে ছিনিয়ে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে মরদেহ টেনে পাটগ্রাম বুড়িমারী মহাসড়কে নিয়ে বাসকল মোড়ে আগুনে পুড়িয়ে ছাই করে দেয়। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা মহাসড়কে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে।

এ দিকে বিক্ষুব্ধ জনতা বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ ভাংচুর শুরু করলে পাটগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান ও পাটগ্রাম থানার ওসি এবাং বুড়িমারী ইউপি চেয়ারম্যান স্থানীয় ন্যাশনাল ব্যাংকে অবস্থান করলে সে খানেও বিক্ষুব্ধ জনতা ইটপাটকেল ছুড়ে ন্যাশনাল ব্যাংক ও কয়েকটি দোকান ভাংচুর চালান। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পাটগ্রাম ও হাতীবান্ধা থানা পুলিশ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা দফায় দফায় চেষ্টা করে ব্যর্থ হন। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতার ছোড়া ইট পাথরের আঘাতে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে ১৭ রাউন্ড ফাঁকাগুলি ছোড়ে পুলিশ।

এ দিকে রাত সাড়ে ১০টার দিকে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর ও পুলিশ সুপার (এসপি) আবিদা সুলতানা অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। নিহত জুয়েলের সঙ্গী সুলতান যোবাইয়েরকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েনের পাশাপাশি র‌্যাবের সদস্যরা টহল অব্যাহত রেখেছেন।

এদিকে ঘটনাটি তদন্তে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট টি এম এ মমিনকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৩ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

বুড়িমারী বাজার জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন জবেদ আলী জানান, বিকেলে ওই দুইজন আছরের নামাজ আদায় শেষে নিজেকে র‌্যাব পরিচয়ে মসজিদের বিভিন্নজায়গা তল্লাশি শুরু করেন। এ সময় আমাকে ও কয়েক জন মুসল্লিহিকে খারাপ ভাষায় গালি দেন। এ সময় ওই দুই ব্যাক্তিকে স্থানীয় কয়েকজন ধরে ইউনিয়ন পরিষদে জমাদেন। এক প্রশ্নে তিনি জানান, সে কোরআন শরিফে পা রাখেননি।

পাটগ্রাম থানার (ওসি) সুমন্ত কুমার মোহন্ত  বলেন, এ ঘটনায় নিহতের পরিবার, পুলিশের ওপর হামলা ও ইউনিয়ন পরিষদ ভাঙচুরের দায়ে পৃথক তিনটি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। তবে এখনও মামলাটি হাতে আসেনি।

বুড়িমার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান নেওয়াজ নিশাদ বলেন, বিক্ষব্ধ জনতা  ইউনিয়র পরিষদের আসবার পত্রসহ সব ভাংচুর করে অফিসে থাকা ৩ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, এ ঘটনায় মামলা করা হচ্ছে। একই সঙ্গে ঘটনা তদন্তে ৩ দিনের সময় দিয়ে ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

লালমনিরহাট পুলিশের এএসপি তাপস সরকার জানান, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ তৈরি করা হচ্ছে তা সম্পূর্ন হলে মামলাটি গ্রহন করা হবে।



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com