রংপুরে নারীদের ইলেকট্রিক্যাল বিষয়ক প্রশিক্ষণ শেষে সার্টিফিকেট ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম বিতরণ

আমাদের প্রতিদিন
2024-02-27 12:50:58

নিজস্ব প্রতিবেদক:

জয়িতা ফাউন্ডেশন- মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে, কারুপণ্য উন্নয়ন সংস্থা’র পরিচালনায় পিছিয়ে পড়া পরিবারের নারীদের মধ্য হতে ২০ জন নারীকে আস্থা যুব সমাজ উন্নয়ন সংস্থা রংপুরের একান্ত প্রচেষ্টায় রংপুরে ৫ দিন ব্যাপী ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইনস্টলেশন মেইনটেনেন্স বিষয়ক প্রশিক্ষণ শেষে সমাপনি অনুষ্ঠান ও প্রশিক্ষানার্থীদের সার্টিফিকেট ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সকালে নগরীর ধাপ, সার্কিট হাউজ লেনে অবস্থিত আস্থা যুব সমাজ উন্নয়ন সংস্থা মিলনায়তনে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইনস্টলেশন মেইনটেনেন্স বিষয়ক প্রশিক্ষণ শেষে সমাপনি অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

সমাপনি ও সার্টিফিকেটসহ বৈদ্যুতিক সরঞ্জান বিতরণ অনুষ্ঠানে আস্থা যুব সমাজ উন্নয়ন সংস্থার চেয়ারম্যান ও বিশিষ্ট সফল জয়িতা নাফিসা সুলতানার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক, স্থানীয় সরকার বিভাগ রংপুর জিলুফা সুলতানা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর রংপুর সেলোয়ারা বেগম, রংপুর স্বর্ণ নারী এসোসিয়েশনের সভাপতি মঞ্জুশ্রী সাহা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর উদ্যোক্তা উন্নয়ন ফেডারেশনের সহ-সভাপতি ফেরদৌসী কারাদিয়া, সাধারণ সম্পাদক জাকিয়া ফেরদৌস, সদস্য মুমু কবীর, রুমানা নাহিদ, সালমা, প্রশিক্ষক কারুপণ্য কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, ঠাকুরগাঁওয়ের ইলেকট্রিক্যাল ট্রেইনার নুর আলম ও আনিছুর ভঁইয়া।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আস্থা যুব উন্নয়ন সংস্থার চেয়ারম্যান নাফিসা সুলতানা বলেন, নারী উদ্যাক্তার সংখ্যা বাড়লেও তারা সুই,সুতা নিয়ে পড়ে থাকে, তাই তাদের স্মাট উদ্যাক্তা হিসেবে তৈরি করার লক্ষ্যে আমরা ইলেকট্রিক্যালের উপর প্রশিক্ষণের আয়োজন করেছি। যা বর্তমানে রংপুরে কাজ হচ্ছে। পরবর্তীতে সকল উপজেলা পর্যায়ে আমরা প্রশিক্ষণ দিবো। আমরা চাই নারীরা সর্বক্ষেত্রে স্মাট হোক। তার অন্যের উপর নির্ভর না হয়ে নিজের পায়ে দাড়াক।

উল্লেখ্য. ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইনস্টলেশন মেইনটেনেন্স বিষয়ক প্রশিক্ষণ ৫দিন ব্যাপী (যা ১২ নভেম্বর শুরু ১৬ নভেম্বর শেষ হয়) অনুষ্ঠিত হলো। প্রশিক্ষণের মধ্যে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইনস্টলেশন মেইনটেনেন্স বিষয়ে বিশেষ জ্ঞান দেয়া হবে যাতে নারীরা কর্ম করে নিজের পায়ে দাড়াঁতে পারে। যা ২০ জন নারীকে দিয়ে শুরু করা হয়েছে পর্যায়ক্রমে প্রশিক্ষণ চলমান থাকবে।