রংপুরে জেলা ও মহানগর বিএনপির সদস্য  সচিবসহ ৫ জনের ১০ বছর করে কারাদন্ড

আমাদের প্রতিদিন
2024-02-23 07:13:25

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বিস্ফোরক আইনের মামলায় রংপুর মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাহফুজ উন নবী ডন, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আনিসুর রহমান লাকু, মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক জহির আলম নয়নসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে ১০ বছর করে কারাদÐাদেশ দিয়েছেন আদালত। মামলায় অন্য দুই আসামি জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রইচ আহমেদ ও জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সামসুল হক ঝন্টু মৃত্যুবরণ করায় তাদের অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

সোমবার দুপুরে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-১ এর বিচারক কৃষ্ণকান্ত রায় এই আদেশ দেন। অন্য আসামিরা হলেন- জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি তারেক হাসান সোহাগ ও যুবদলী কর্মী আরিফ হোসেন। রায়ে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাস করে কারাদÐাদেশ দেয়া হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের কুশলি আব্দুস সাত্তার জানান, ২০১৩ সালের ১৯ মে যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের হরতালের আগের রাতে রংপুর পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট মাঠে ঢাকা কোচে অগ্নিসংযোগের জন্য প্রস্তুতি নেয়ার সময় পুলিশ আসামিদের হাতেনাতে গ্রেফতার করে। এ সময় তাদের কাছে থেকে ৫৬টি চকলেট বোমাসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তাদের গ্রেফতারপূর্বক তৎকালীন কোতয়ালী থানার এসআই চন্দন কুমার চক্রবর্তি মামলা করেন। ১৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ এবং জেরা শেষে তাদের বিরুদ্ধে এই রায় দেয়া হলো। রায় প্রদানের সময় মাহফুজ উন নবী ডন কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন। অন্য আসামীরা পলাতক রয়েছেন।

রায়ে খুশি হওয়ার কথা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপক্ষ। আর আসামিপক্ষের আইনজীবী আফতাব হোসেন ও শফি কামাল জানিয়েছেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতে এই রায়ে জাতি হতবাক হয়েছে। আদালতকে ব্যবহার করে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে সরকার ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করতে চাচ্ছে। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথাও জানান তারা।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই রায়ের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাচ্ছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা।