১৫ মাঘ, ১৪২৯ - ২৮ জানুয়ারি, ২০২৩ - 28 January, 2023
amader protidin

গঙ্গাচড়ায় নদীর তলদেশ দখলে নিয়ে প্রভাবশালীদের চাষাবাদ

আমাদের প্রতিদিন
2 days ago
40


নির্মল রায়,গঙ্গাচড়া (রংপুর):

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে চলা ঘাঘট নদীর পানি শুকিয়ে গেছে। এ সুযোগে নদীতে ধানসহ অন্যান্য ফসল চাষ করেছে প্রভাবশালীরা। নদী দখল রোধে স্থানীয় প্রশাসনের পদক্ষেপ না থাকায় দখলদাররা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, শুস্ক মৌসুমে ঘাঘট নদীর বিশাল অংশে চর জাগায় সেগুলোতে চাষাবাদ হচ্ছে। তীরবর্তী মানুষ নদী দখলে নিয়ে ফসল চাষ করে। শুষ্ক মৌসুম এলেই নদীতে চাষাবাদের প্রতিযোগিতা শুরু হয়। উপজেলার নোহালী, আলমবিদিতর,বড়বিল ইউনিয়নে ঘাঘট নদীর বিশাল অংশে চাষাবাদ হচ্ছে। নদীর জমি নিজের দাবি করে দখলে নিচ্ছে প্রভাবশালীরা। তারা চাষাবাদের অজুহাতে নদীর গতিপথ পরিবর্তন করছে। বড়বিল ইউনিয়নের ঘাঘট তীরের বাসিন্দা মোসলেম মিয়া বলেন, তিনি হতদরিদ্র হয়েও নদীতে চাষাবাদের সুযোগ পাননি। অথচ যাদের জমি আছে তারাই নদী দখল করে চাষাবাদ করেন। ফারুক মিয়া বলেন, নদীর পানি শুকিয়ে যাওয়ায় তলদেশে চাষাবাদ করলে বাড়তি ফসল পাওয়া যায়। তাই নদীতে চাষাবাদ দোসের কি? বর্তমানে নদীর তলদেশে সবচেয়ে বেশি রোপণ করা হয়েছে ধান।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার সাহা বলেন, নদীর তলদেশে চাষাবাদ বেআইনি। নদীতে চর জেগে চাষাবাদের উপযোগী হলে ভূমি অফিস থেকে জরিপ করে এক নম্বর খাস খতিয়ানভুক্ত করার পর ভূমিহীনদের মাঝে তা বন্দোবস্ত দেওয়ার নিয়ম। সে ক্ষেত্রে প্রভাবশালী বা ভূমি মালিকরা কখনোই খাস জমির দাবিদার হতে পারবেন না। অবৈধভাবে কেউ নদীর তলদেশ বা চরাঞ্চল দখল করে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়