বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১   Thursday, 13 May 2021.  



 বাংলাদেশ


আমাদের প্রতিদিন

 Apr-20-2021 05:20:17 PM


 

No image


>> গড়ে উঠেছে বেশ কিছু উদ্যোক্তা ও বিক্রেতা

>> ঘরে বসেই পছন্দের পোশাক ক্রয় করতে পারছেন ক্রেতারা

দিনাজপুর প্রতিনিধি:

পবিত্র মাহে রমজানের এক সপ্তাহ অতিক্রান্ত হয়েছে। ঘনিয়ে আসছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। পাশাপাশি করোনা পরিস্থিতিও ভয়াবহ রূপ ধারণ করছে। এরই মধ্যে সরকার এক সপ্তাহের লকডাউন দ্বিতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত বাড়িয়েছে। আনন্দময় এই ঈদ এবারও হয়তো ঘরেই কাটাতে হবে। পরিস্থিতি যা-ই হোক নতুন কাপড় ছাড়া তো আর ঈদ ভাবাই যায় না। তাই দিনাজপুরে এরই মধ্যে চলছে ঈদের প্রস্তুতি, কেনাকাটাও বন্ধ নেই। আর ঘরে বসেই এই কেনাকাটার সুযোগ করে দিয়েছে আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি “অনলাইন”। ঘরে বসেই বিক্রেতা ও ক্রেতার সমন্বয় ঘটাতে ব্যবহৃত হচ্ছে এই অনলাইন। ঈদের কেনাকাটায় ক্রেতাদের সুবিধার্থে এরই মধ্যে দিনাজপুরে গড়ে উঠেছে বেশ কিছু উদ্যোক্তা ও বিক্রেতা। ঈদকে সামনে রেখে বাহারী পোশাকের সমারোহ ঘটিয়েছে স্থানীয় এসব বিক্রেতা ও উদ্যোক্তারা। ঘরে বসেই অনলাইনে ঈদের কেনাকাটা বেশ জমে উঠতে শুরু করেছে দিনাজপুরে।

দেশে কয়েক বছর ধরে অনলাইন কেনাকাটা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। দিন দিন এর ব্যাপকতাও বাড়ছে। এখন ঘরে বসেই পছন্দের পণ্য অর্ডার করলে সময়মতো পৌঁছে যাচ্ছে কোনো ঝুক্কি-ঝামেলা ছাড়াই। তাই করোনা মহামারীর এ কঠিন সময়ে বাড়ী থেকে বের না হয়ে অনেকেই ঈদের কেনাকাটা সারছেন অনলাইনে।

দেশের সর্বোত্তরের জেলা দিনাজপুরে অনলাইনে ঈদের কেনাকাটা সম্পন্ন করার জন্য ইতিমধ্যেই গড়ে উঠেছে অনলাইন শপিং-এর বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান, উদ্যোক্তা গ্রুপ ও বিক্রেতা। এদের মধ্যে “দিনাজপুরের উদ্যোক্তাবর্গ” “অঞ্জলী অনলাইন”, “রাহিনুর ইসলাম সিদ্দিকী” “রাইসা ঝিলম”, “মাহজাবিন রিজা” “নাজনীন সুইটি”সহ বিভিন্ন উদ্যোক্তা। এছাড়াও লকডাউাউনে ঈদের কেনাকাটা সারতে শহরের বেশ কিছু দোকানও অনলাইনে বিক্রির প্রস্তুতি নিচ্ছে। তবে এগুলোর মধ্যে অসংখ্য উদ্যোক্তার সমন্বয়ে গঠিত “দিনাজপুরের উদ্যোক্তাবর্গ” গ্রুপটি ইতিমধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। ফেসবুকে এসব আইডিতে প্রবেশ করে ঘরে বসেই যে কেউ পছন্দের ঈদের কেনাকাটা সেরে নিতে পারবেন। সাধারণত অনলাইনে কেনাকাটা করতে গিয়ে অনেকেই প্রতারিত হওয়ার খবর শোনা গেলেও দিনাজপুরের স্থানীয় উদ্যোক্তাদের নিয়ে এসব অনলাইন শপ গড়ে উঠায় কেনাকাটা করতে গিয়ে দিনাজপুরের মানুষের প্রতারিত হওয়ার তেমন আশংকা নেই বলে জানিয়েছেন উদ্যোক্তারা। কারণ কোন ক্ষেত্রে প্রতারিত হলে স্বশরীরেও এসব অনলাইন শপিং গ্রুপের সাথে দেখা করার সুযোগ আছে।

এ বিষয়ে কথা হয় “দিনাজপুরের উদ্যোক্তাবর্গ” গ্রুপের এডমিন সম্পা দাস মৌ-এর সাথে। তার সাথে এই গ্রুপে মোডারেটর হিসেবে রয়েছেন হুমায়ুন কবীর প্রধান, রুখসানা ফেরদৌস, নাসিবা শাহরিয়ার ও সানজিদা। তিনি জানালেন, তাদের গ্রুপের এখন সদস্য সংখ্যা প্রায় ১৪ হাজার। শুধু ঈদের কেনাকাটা নয়, বিভিন্ন ধরনের পণ্য তারা এই গ্রুপের মধ্যে অনলাইনে সরবরাহ করছেন। তবে এই লকডাউনে ঈদের জন্য তারা নিয়েছেন বিশেষ প্রস্তুতি। পাঞ্জাবী, সব রকমের শাড়ী, বিভিন্ন ডিজাইনের থ্রি-পিস, জুতাসহ ঈদের সব পণ্যই তারা অনলাইনে সরবরাহ করছেন। ফেসবুকে এই গ্রুপে ঢুকলেই ক্রেতারা তাদের পণ্য দেখতে পারবেন এবং দামও জানতে পারবেন। ভিডিও আকারেও পণ্যগুলো পোষ্ট করা হয় বলে জানান তিনি।  তিনি জানান, ভিডিও কলের মাধ্যমেও তারা ক্রেতাদের পণ্য দেখান এবং প্রতিদিন বিভিন্ন পণ্য নিয়ে ফেসবুকে লাইভও করেন তারা।

রাহিনুর ইসলাম সিদ্দিকী নামে দিনাজপুরের আরেক উদ্যোক্তা তার ফেসবুক পেজে লিখেন, তাদের পাঞ্জাবী এখন দারাজ ডট কম-তেও পাওয়া যাচ্ছে। এই করোনায় ঘরে বসেই ঈদের শপিং করার আহ্বান জানান তিনি।

অন্যান্য উদ্যোক্তারাও বলেন, করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাই অনলাইনে কেনাকাটা করুক। এরই মধ্যে অনেকেই অনলাইন পেইজ থেকে ক্রেতারা ঈদের কেনাকাটা করছেন। গত বছরের চেয়ে এ বছর ক্রেতাদের অংশগ্রহণ অনেক বেশি। ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে তারা বলেন, যেহেতু এগুলো দিনাজপুরের প্রতিষ্ঠান ও উদ্যোক্তা, তাই এ জেলার মানুষ ভরসা করে কেনাকাটা করতে পারেন।



আজকের রংপুর


No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image
No image






 

 

 

 

 

 
সম্পাদক ও প্রকাশক
মাহবুব রহমান
ইমেইল: mahabubt2003@yahoo.com