মিঠাপুকুরে বিএনপির পরিচিতি সভায় হাতাহাতি সভা পন্ড

আমাদের প্রতিদিন
2024-06-13 02:45:31

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলা বিএনপির পরিচিতি সভায় হাতাহাতি।

সবুজ আহম্মেদ, মিঠাপুকুর:  

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলা বিএনপির পরিচিতি সভায় হাতাহাতি ও চেয়ার ছোড়াছুড়ি হয়েছে। বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীদের তোপের মুখে সভা পন্ড হয়েছে।  শনিবার রাতে (২৯ এপ্রিল) এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলা কমিটির আহ্বায়ক কমিটির পরিচিতি সভা আজ শনিবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ে শুরু হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক গোলাম রাব্বানী।  সঞ্চালনা করেন সদস্য সচিব মোতাহারুল ইসলাম নিক্সন পাইকাড়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  শুরুতেই একদল বিক্ষুব্ধ কর্মী সভাস্থলে গিয়ে হট্টগোল শুরু করেন। এক পর্যায়ে সভার কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়।  পরে রাত ৮ টার দিকে আবার সভা শুরু হলে আবার বিক্ষুব্ধ কর্মীরা সেখানে ব্যাপক হট্টগোল করে। এ সময় নেতাকর্মীদের হাতাহাতি ও চেয়ার ছোড়াছুড়ি হয়। 

জানা গেছে, মার্চ মাসে উপজেলা বিএনপির ৩৪ সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায় কমিটি গঠন করা হয়। এ নিয়ে আগে থেকেই অসন্তোষ চলছে নেতাকর্মীদের মাঝে। গত বছরের ২১ মে উপজেলা কমিটি গঠনের লক্ষে কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।  দশ মাস পর এ বছরের মার্চের শেষে কমিটি ঘোষণা করে রংপুর জেলা বিএনপি। এতে আহ্বায়ক পদে গোলাম রাব্বানী এবং সদস্য সচিব পদে মোতাহারুল ইসলাম নিক্সনকে মনোনিত করে ৩৪ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

কমিটি ঘোষণার পর পরই তা প্রত্যাখ্যান করে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন পদ বঞ্চিত নেতাকর্মীরা। কমিটিতে পদ বঞ্চিতদের দাবি, বিএনপির যোগ্য নেতা, সাবেক ছাত্রনেতা, যুবনেতাসহ অনেককে আহ্বায়ক কমিটিতে মূল্যায়ন করা হয়নি।

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক আহ্বায়ক একেএম রুহুল্লাহ্ জুয়েল বলেন, কিছু লোককে তুষ্ট করতেই এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। ত্যাগী নেতাদের এই আহ্বায়ক কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়নি। আমি এই কমিটি প্রত্যাখ্যান করছি। ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি সাদেকুল ইসলামসহ অনেকে একই কথা বলেন। এ ব্যাপারে আহ্বায়ক গোলাম রাব্বানী বলেন, ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। তাই কথা কাটাকাটি ও তর্ক হয়েছে। হাতাহাতি হয়নি।’