গঙ্গাচড়ায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অপহরণের মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেফতার

আমাদের প্রতিদিন
2024-07-19 19:56:02

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে গঙ্গাচড়া মডেল থানা পুলিশ। গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ পরিচয়ে হাতকড়া পড়িয়ে যুবককে বাড়ি থেকে অপহরণ, মারপিট ও মুক্তিপণ দাবির মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে  সোমবার (৮ মে) বিকেলে আলমবিদিতর ইউনিয়নের সয়রাবাড়ী বাজার থেকে  গ্রেফতার করা হয়।

মঙ্গলবার  (৯ মে) দুপুরে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে গঙ্গাচড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল হোসেন জানান, ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার  (৯ মে) সকালে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে এই মামলায় তিনজনকে গ্রেফতার করা হলো। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। এর আগে এই মামলায় পুলিশ কনস্টেবল মাসুদ রানাকে (২৪) গ্রেফতার করে পুলিশ।

সোমবার (১৭ এপ্রিল) রাতে পঞ্চগড় থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। কনস্টেবল মাসুদ রানা রংপুর রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স থেকে প্রেষণে পঞ্চগড় পুলিশ লাইনে কর্মরত ছিলেন। তিনি গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের পশ্চিম মনিরাম এলাকার আব্দুল ওয়াহেদ মিয়ার ছেলে। এছাড়া শনিবার (৬ মে) রাতে পাবনা সদর উপজেলা এলাকা থেকে সুরুজ মিয়া (৩৫)  নামে এক যুবকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।

গ্রেফতার সুরুজ মিয়া গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের মন্ডলের হাট এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের ছেলে।

উল্লেখ্য, গত ৯ এপ্রিল দিনগত রাত ১টায় গঙ্গাচড়া উপজেলার আলমবিদিতর ইউনিয়নের চওড়াপাড়া গ্রামের নুর ইসলাম আপাছের বাড়িতে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অজ্ঞাত সাতজন যুবক ঢুকে তার ছেলে সোনা মিয়াকে মারপিট করে বাড়ি থেকে নিয়ে যায়। পরে সোনা মিয়ার পরিচিত সুরুজ মিয়ার মাধ্যমে অপহরণকারীরা পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেন। খবর পেয়ে ওই রাতেই পার্শ্ববর্তী নোহালী ইউনিয়নের একটি চাতাল থেকে সোনা মিয়াকে উদ্ধারের পর হাসপাতালে ভর্তি করে পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় ১০ এপ্রিল অজ্ঞাত অপহরণকারীদের বিরুদ্ধে গঙ্গাচড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সোনা মিয়ার বাবা নুর ইসলাম।