মিঠাপুকুরে মহাসড়কের মাঝখানে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ডটি অপসারিত

আমাদের প্রতিদিন
2024-07-19 14:22:27

সবুজ আহম্মেদ, মিঠাপুকুর:

ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের মাঝখানে বাঁশ-কাঠ দিয়ে নির্মিত ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ডটি অপসারণ করা হয়েছে। আজ  সোমবার দুপুরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহি মেজিট্রেট রুহুল আমিন বিলবোর্ডটি অপসারণ করেন। বিলবোর্ডটি মিঠাপুকুরের গড়েরসাথা নামক স্থানে স্থাপন করেছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা মোতাহার হোসেন মন্ডল মওলা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রংপুর মহা সমাবেশে আগমনকে কেন্দ্র করে বিলবোর্ডটি স্থাপন করা হয়েছিল। ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের মাঝখানে বাঁশ ও কাঠ দিয়ে নির্মিত বিলবোর্ডটি ছিল চরম ঝুঁকিতে। বিলবোর্ডটি অপসারণের জন্য মোটর মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠনগুলো উপজেলা নির্বাহি অফিসারের কাছে কয়েকদফা আবেদন করেছিল। তারই প্রেক্ষিতে বিষয়টি নজরে আনে প্রশাসন। অবশেষে ঝুঁকিপূর্ণ বিলবোর্ডটি অপসারণ করে উপজেলা প্রশাসন।

সরেজমিনে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের বড় দরগাহ্ হতে দমদমা পর্যন্ত প্রায় ২৫ কিলোমিটার এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, মহাসড়কের কোথাও এভাবে বিলবোর্ড স্থাপন হয়নি। রাস্তার মাঝখানে শুধুমাত্র গড়ের মাথায় এটি স্থাপন করার কারণে যানবাহন চলাচলে ব্যাঘাত সৃষ্টি হচ্ছিল। বিশেষ করে রাতের বেলায় চালকেরা ঠিকমত রাস্তা অনুসরণ করতে পারত না।-এমনটি জানিয়েছেন কয়েকজন বাস ও ট্রাক চালক।

উপজেলা নির্বাহি অফিসার (অ:দা) ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) রুহুল আমিন বলেন, মহাসড়কের মাঝখানে নির্মিত বিলবোর্ডটি ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। মোটর মালিক সমিতি ও শ্রমিক সংগঠনগুলো এটি অপসারণের জন্য আবেদন করেছিল। কয়েকদফা এটি নির্মান করা ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগ করেও কোন সুরাহা হয়নি। অবশেষে বিলবোর্ডটি অপসারণ করা হয়েছে। আওয়ামীলীগ নেতা মোতাহার হোসেন মন্ডল মওলা বলেন, চলতি মাসের ১১ তারিখে ইউএনও সাহেব গড়ের মাথায় আমার ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে এসে ঝুঁকিপূর্ণ উল্লেখ করে বিলবোর্ডটি সরিয়ে ফেলতে বলেছিল। গত ১৫ আগষ্ট আবারও সরাতে বলায় আমি সেটি সরিয়ে ফেলেছি। পুনরায় ছোট আকারে তৈরী করে আরেকটি বিলবোর্ড লাগিয়েছি। এটিতে কারো ক্ষতি হওয়ার কারণ দেখিনা।