যুবলীগের শোক সভায় নীলফামারীকে ‘স্মার্ট জেলা’ ঘোষণা

আমাদের প্রতিদিন
2024-06-16 05:29:35

নীলফামারী প্রতিনিধি:

নীলফামারীকে ‘ডিজিটাল ও স্মার্ট জেলা’ গড়ার ঘোষণা দিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট মমতাজুল হক। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা শহরের শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে জেলা যুবলীগ আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৮তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় এই ঘোষণা দেন।তিন বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ঘোষণা তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করেছিলো বিরোধী জোট অথচ বাংলাদেশ আজ ডিজিটাল হয়েছে প্রতিটি মানুষ এর সুফল ভোগ করছেন। বলেন, আজ থেকে স্মার্ট জেলা বাস্তবায়নে আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের প্রতিটি নেতা কর্মী কাজ করবে। প্রতিটি নেতা কর্মী যেমনি হবেন স্মার্ট তেমনি সাংগঠনিক কার্যক্রমও হবে স্মার্ট। এরফলে গতিশীলতা এবং উজ্জিবিত হবেন নেতা কর্মীরা।জেলা যুবলীগের সভাপতি এ্যাডভোকেট রমেন্দ্র নাথ বর্ধন বাপ্পীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ।  সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াদুদ রহমান, জেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের নারী ভাইস চেয়ারম্যান সান্তনা চক্রবর্তি, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি সুধির রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফি সবুজ, অর্থ সম্পাদক শাহ আনোয়ার হোসেন ও সদর উপজেলা সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফিক বক্তব্য দেন।  জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাফর সাদেক তুহিন আলোচনা সভা পরিচালনা করেন। অনুষ্ঠানে সদর উপজেলার নেতা কর্মীদের মাঝে দুই হাজার সুগন্ধি সাবান ও দুই হাজার বিভিন্ন জাতের গাছের চারা বিতরণ করেন অতিথিগণ। এরআগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয় জেলা যুবলীগের উদ্যোগে।জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার শেষ গোসল করানো হয়েছিলো কাপড় কাঁচা সাবান ৫৭০ দিয়ে। একজন জাতির পিতা একজন মহামান্য রাষ্ট্রপতির প্রতি এভাবে চরম অবিচার করা হয়েছিলো। আমরা এর প্রতিবাদ স্বরুপ শোকের মাসে সুগন্ধি সাবান ও গাছের চারা বিতরণ করেছি নেতা কর্মীদেরসহ সাধারণ মানুষের মাঝে।