পীরগাছায় ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে সেবা গ্রহিতাকে মারধরের অভিযোগ

আমাদের প্রতিদিন
2024-07-11 10:53:14

পীরগাছা (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের পীরগাছার কান্দি ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা আতাউর রহমান মিঠুর বিরুদ্ধে সেবা গ্রহিতাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার কান্দি ইউনিয়নের মাঝি পাড়া নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারটি মাঝিপাড়া নামক স্থানে ভাড়া দোকানে চলছিল। যদিও সেটি থাকার কথা রয়েছে ইউনিয়ন পরিষদে।

ভুক্তভোগী রণজিৎ চন্দ্র সরকার জানান, তিনি  প্রায় এক মাস আগে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারে একটি জন্ম নিবন্ধন সনদ করতে দেন। কিন্তু ২০ দিন পার হলেও জন্ম নিবন্ধন সনদ হাতে পান নি তিনি। গতকাল রোববার  এগারো টার দিকে তিনি ডিজিটাল সেন্টারের ওই দোকানে আসেন কাজের খবর নিতে। এতে উদ্যোক্তার  সঙ্গে কথা বলতে তার ছোট ভাই আতিকুর রহমান রনি  চড়াও হয়ে এলো পাথাড়ি ভাবে আমাকে মারধর ও গালাগাল করেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এটা একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ও দু:খজনক ঘটনা। আমরা একসাথে দোকানে আছি। রণজিৎ সরকার এসে উদ্যোক্তা মিঠুও রনি কাজের কথা জিজ্ঞেসা করায় ক্ষিপ্ত হয়ে মারধর করে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উক্ত ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তার বিরুদ্ধে সেবা নিতে আসা গ্রাহকদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করা, নিবন্ধন ফরম বিক্রি, অতিরিক্ত জন্ম নিবন্ধন ফি, অতিরিক্ত ট্যাক্স আদায়সহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। তিনি নিজের মতো করে এই ডিজিটাল সেন্টারটি পরিষদ চত্ত¡রের বাইরে ভাড়া দোকানে চালাচ্ছেন।

উক্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে সচেতন মহল উদ্যোক্তার বিচার এবং ডিজিটাল সেন্টারটি  ইউনিয়ন  পরিষদে স্থানান্তরের দাবি জানান ।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তা মিঠু মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, কথা কাটাকাটি হয়ে এমন মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে জানতে কান্দি ইউপি চেয়ারম্যান, আব্দুস সালাম আজাদ জুয়েলকে একাধিকবার মুঠোফোনে কল দিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার  (ইউএনও) নাজমুল হক সুমন বলেন, এ ব্যাপারে কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।