পীরগাছায় নির্মাণধীন মসজিদের মেহরাব ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগ, মুসুল্লিদের মানববন্ধন

আমাদের প্রতিদিন
2024-07-19 13:45:48

পীরগাছা(রংপুর)প্রতিনিধি:

রংপুরের পীরগাছায় একটি নির্মাণধীন মসজিদের মেহরাব ভেঙ্গে ফেলার অভিযোগ উঠছে জমি দাতা জিল্লুর রহমানের বিরুদ্ধে। মসজিদ কমিটির সভাপতি হতে না পেরে তিনি গত শনিবার মেহরাবটি ভেঙ্গে ফেলেন বলে অভিযোগ করছেন মসজিদ কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় মুসুল্লিরা। বিষয়টি নিয়ে সাধারন মুসুল্লিদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। গতকাল বুধবার এ বিষয়ে এলাকার সাধারন মুসুল্লিরা জিল্লুর রহমানকে গ্রেফতারের দাবি করে হক বাজারে মানববন্ধন করেছে।

জানা গেছে, পীরগাছা উপজেলার কৈকুড়ী ইউনিয়নের হক বাজার জামে মসজিদটি পাকা সড়ক সংলগ্ন ৩ শতাংশ জমির উপর ছিল। মসজিদের জায়গাটি স্বল্প পরিমান হওয়ায় মুসুল্লিদের জায়গা সংকুলান না হওয়ায় মসজিদ কমিটি স্থানীয় মুসুল্লিদের নিয়ে বৈঠক করে মসজিদর ১০ গজ দুরে মসজিদের নামে থাকা ১ শতাংশ জমির পাশের এক ব্যক্তির নিকট জমি বদল করে এবং অতিরিক্ত টাকা নিয়ে মসজিদের নির্মাণ কাজ শুরু করেন। এদিকে মসজিদের জায়গা নিজের বলে দাবি করে ওই এলাকার আব্দুল হকের ছেলে জিল্লুর রহমান গত শনিবার দুপুরে সাবল দিয়ে নিমার্ণধীন মসজিদের মেহরাবটি ভেঙ্গে ফেলেন। এসময় স্থানীয় সার ডিলার মিজানুর রহমানসহ কয়েক ব্যক্তি বিষয়টি দেখে আশেপাশে লোকজনকে ডাকলে জিল্লুর রহমান দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে যান।

মসজিদ কমিটির সভাপতি জয়নাল আবেদীন বলেন,  জিল্লুর রহমানকে মসজিদ কমিটির সভাপতি না বানার কারণে তিনি সম্প্রতি কিছু মুসুল্লির নামে মামলা দায়ের করেছেন। শনিবার তিনি সাবল দিয়ে মসজিদের মেহরাবটি ভেঙ্গে ফেলেন। আমি এ বিষয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।

জিল্লুর রহমানের চাচা আব্দুস সোবাহান বলেন, মসজিদের স্থানে জিল্লুরের কোন জমি নেই। সে এই মসজিদের কোন মুসুল্লিও নয়।

এ ব্যাপারে জানতে জিল্লুর রহমানের বাড়িতে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি। মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মসজিদের জায়গা বিক্রি করে আরেক জায়গায় মসজিদ করতেছে, এজন্য আমি মামলা করেছি। আর মসজিদ কমিটি জমির কোন কাগজপত্র দেখাতে পারবে না।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুশান্ত কুমার সরকার বলেন, আমরা মসজিদ কমিটির নিকট ১ শতাংশ জমি ওয়াকফো করে দেওয়ার কাগজপত্র দেখাতে বলেছি। আর মেহরাব ভাঙ্গার বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।