৬ শ্রাবণ, ১৪৩১ - ২২ জুলাই, ২০২৪ - 22 July, 2024
amader protidin

চিলমারীতে স্কুল ছাত্রকে ক্লাস থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ

আমাদের প্রতিদিন
10 months ago
267


চিলমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ৪র্থ শ্রেণীর এক ছাত্রকে ক্লাস থেকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে গত(৯আগষ্ট) বুধবার উপজেলার রমনা ইউনিয়নে অবস্থিত রমনা বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ঘটনার ২সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও বিদ্যালয়ে ফিরতে পারেনি ওই ছাত্র।

জানা গেছে, উপজেলার রমনা পানাতি এলাকার মোহাইমিনুল ইসলামের ছেলে মাঈদুল ইসলাম পাশ্ববর্তী রমনা বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র। প্রতিদিনের ন্যায় ৯আগষ্ট(বুধবার) মাঈদুল ইসলাম স্কুলে গেলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছাবেদ আলী মন্ডল তাকে ক্লাস থেকে বের করে দেয়। এরপর ২সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও ওই শিক্ষার্থী ক্লাসে ফিরতে পারেনি বলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকের অভিযোগ।

ভুক্তভোগী স্কুলছাত্র মাঈদুল ইসলাম বলে,‘ঘটনার দিন আমি ক্লাস করার জন্য স্কুলে গেলে হেড স্যার আমাকে বলে আমি যেন তোমাকে আমার চোখের সামনে না দেখি।এখনি স্কুল থেকে চলে যা। আমি বলি স্যার আমি কি করেছি যে আমাক বের করি দেন। স্যার বলে কোন কথা নাই ভাগ এখান থেকে।আর বলতে থাকে স্কুলের জানালা হারায় তখন কি করিস। তোর দরকার নাই স্কুলে। সেদিন বের করে দিলেও আমি পরেরদিন আবারো স্কুল যাই স্যার সেদিনও আমাকে ক্লাস থেকে বের করে দেয়।

এর আগে ৫ম শ্রেণী পড়ুয়া এক ছাত্রকে বিনা কারনে ২বছর পরীক্ষায় সুযোগ না দেয়ারও অভিযোগ রয়েছে এই প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। জানা গেছে,শামীম মিয়া নামে ৫ম শ্রেণীর ওই ছাত্রকে ব্যক্তিগত আক্রশের কারনে ২বছর পরীক্ষায় অংশ নিতে দেয়নি ওই প্রধান শিক্ষক। পরে বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সহ-সভাপতি কামরান মুন্নার হস্থক্ষেপে পরীক্ষার অনুমতি মেলে ওই ছাত্রের। পরীক্ষার পর ভালো ফলাফল করে সে এখন মাধ্যমিকে অধ্যায়ন করছে।

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক ছাবেদ আলী মন্ডলের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন,মোবাইল ফোনে কিছু বলা যাবে না,স্কুলে এসে বক্তব্য নিতে হবে।

চিলমারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো.আবু সালেহ সরকার এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিষয়টি জানার পর প্রধান শিক্ষককে ডেকেছিলাম। ঘটনাটি খতিয়ে দেখতে সহকারী শিক্ষা অফিসার(এটিইও)জাহিদুল ইসলামকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়