৬ শ্রাবণ, ১৪৩১ - ২২ জুলাই, ২০২৪ - 22 July, 2024
amader protidin

ডোমার স্টেশন মাষ্টার কর্তৃক মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

আমাদের প্রতিদিন
10 months ago
147


ডোমার(নীলফামারী)প্রতিনিধিঃ

নীলফামারীর ডোমার রেলওয়ে স্টেশন মাষ্টার এসএম-৩,(চুক্তি) আনোয়ার হোসেন কর্তৃক মতিবুল ইসলামের নামে করা মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার ৩০ আগষ্ট সকাল সাড়ে এগারোটায় ডোমার বাজারস্ত বাটার মোড়ে এই সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মতিবুল ইসলাম বলেন, আমার বাবা মৃত্যু আব্দুল লতিফ ১৯৯৮ইং সাল হইতে ২০১২ইং সাল পর্যন্ত ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে কুলির সর্দার হিসেবে সততা, নিষ্ঠা ও সুনামের সহিত দ্বায়িত্ব পালন করা অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন। বাবার মৃত্যুর পর তৎকালীন স্টেশন মাষ্টার আমাকে কুলির সর্দার মনোনীত করিয়া বানিজ্যিক কর্মকর্তা ডি.সি.ও পাকশী বরাবর ১৯ নভেম্বর ২০১২ইং তারিখে একটি আবেদন পত্র প্রেরণ করেন। এরই ধারাবাহিকতায় আমি ২০১২ ইং সাল হইতে ২০২২ ইং সাল পর্যন্ত সততা এবং নিষ্ঠার সহিত আমার উপর অর্পিত দ্বায়িত্ব পালন করিয়া আসিতেছি। বিগত ২০২২ ইং সালে আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার উদ্দেশ্য কতিপয় দূস্কৃতিকারী তৎকালীন ০৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নের্তৃত্বে একটি সাজানো মিথ্যা মানব বন্ধন করেছিল, উক্ত মানব বন্ধনের পরিপ্রেক্ষিতে ডি.সি.ও পাকশী আমাকে মৌখিক ভাবে স্টেশনে কাজ করতে নিষেধ করেন।

মতিবুল ইসলাম আরও বলেন, স্টেশন মাষ্টার আনোয়ার হোসেন বর্তমান স্টেশনে কর্মরত টেন্ডাইল সামছুদ্দিনের কাছে মোটা অংকের উৎকোচ গ্রহণ করিয়া তাকে কুলির সর্দার হিসেবে বৈর্ধতা দেওয়ার ঘোষণা করিতেছেন তা আদো সত্য নহে। কারণ টেন্ডাইল সামছুদ্দিনের নামে ডি.সি.ও পাকশী স্বাক্ষরিত কোন বৈধ কাগজপত্র নাই।

স্টেশন মাষ্টার আনোয়ার হোসেন আমার নামে স্টেশনের বুকিং কাউন্টার থেকে তিহাত্তর (৭৩,০০০) হাজার টাকা চুরির অভিযোগ দায়ের করেছেন, অথচ সেই সময় স্টেশনের বুকিং সহকারীর দ্বায়িত্বে নিয়োজিত ছিলেন মাহাবুব আলম। তিনি আরও উল্লেখ করেন আমি নাকি স্টেশন মাষ্টার এস.এম.-৪ আশরাফুল ইসলামকে উৎকোচ দিয়ে আমার আবেদন পত্রটি ডি.সি.ও পাকশী বরাবরে পাঠিয়েছি। এর পাশাপাশি স্টেশন মাষ্টার এবং স্টেশনের সকল স্টাফগন নাকি আমার ভয়ে আতংকিত অবস্থায় দিনযাপন করছেন।

মতিবুল ইসলাম আরও জানায়, আমি কেমন ছেলে সেটা আপনারা সকলেই অবগত। তাই বর্তমানে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের সম্মানহানি সহ পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করার পাশাপাশি আমার চলাফেরায় নানা রকম প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

পরিশেষে আমি আপনাদের মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে করা মিথ্যা অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এবিষয়ে অবসরপ্রাপ্ত বুকিং সহকারী মাহাবুব আলমের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান বুকিং কাউন্টার থেকে টাকা চুরির বিষয়টির সাথে মতিবুল ইসলামের কোন সর্ম্পৃত্ততা নাই। এবিষয়ে স্টেশন মাষ্টার এস.এম-৪ আশরাফুল ইসলাম বলেন, মতিবুল ইসলামকে নিয়ে আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগটি তিনি তুলেছেন তাহা মিথ্যা বানোয়াট এবং ভিত্তিহীন। এ ব্যাপারে ডোমার স্টেশন মাস্টার এস.এম.-৩ (চুক্তি) আনোয়ার হোসেন জানান, পাকশী অফিসে অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। এটা তদন্ত চলছে। তদন্তে সত্যতা বেরিয়ে আসবে।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়