৮ বৈশাখ, ১৪৩১ - ২১ এপ্রিল, ২০২৪ - 21 April, 2024
amader protidin

ফুলবাড়ীতে ভিটেছাড়ার হুমকি মারাত্বক আহত রবিদাস সম্প্রদায়ের যুবক

আমাদের প্রতিদিন
7 months ago
86


ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে পুরনো মামলার জেরে প্রান্তি জনগোষ্ঠি রবিদাস সম্প্রদায়ের এক যুবককে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়ে ভিটাছাড়ার হুমকির অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। আহত যুবকের পিঠে, পেটে ও মুখে মারাক্তক আঘাত পেয়ে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এই নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার নেওয়াশী বাজার এলাকায়। আহত যুবক সুবাশ চন্দ্র রবিদাস (২৭) উপজেলার ভাঙ্গামোড় ইউনিয়নের নেওয়াশী বাজার এলাকায় শ্যামলাল রবিদাসের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, প্রতিদিনের মতো সুবাশ চন্দ্র বুধবার রাত ৯ টার দিকে তিনি নেওয়াশী বাজার থেকে দোকান বন্ধ করে বাড়ী ফিরছিলেন। রাবাইটারী এলাকার সিরাজুল ইসলাম পাঠান (৩৫) ও রফিকুল ইসলাম (৩৪) তার ওপর আকস্মিক হামলা চালায়। তারা কাঁঠের লাঠি দিয়ে এলোপাথারী মারপিট করতে থাকে। খবর পেয়ে পরিবার ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় মুমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে ফুলবাডী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে ভর্তি করে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দ্রুত কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

আহত যুবক সুবাশ চন্দ্র রবিদাস জানান, তার উপর হামলা চালান সিরাজুল ইসলাম পাঠান। মামলা তুলে না নিলে প্রাণ মেরে ফেলবে আমাকে।

সুবাশের ছোট বোন কলেজছাত্রী পূর্ণিমা রবিদাস (১৮) বলেন, “আমাদের বসতভিটার ১৩ শতাংশ জমি ছাড়া কোন সম্পদ নেই। “দাদাকে মারপিট করা হয়েছে। গুরুতর অসুস্থ দাদা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এঘটনার সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানান তিনি।

স্থানীয় শিক্ষক আশরাফুল আলম ও সমাজকর্মী ফাতেমা বেগম জানান, সিরাজুল ইসলাম পাঠান ও রফিকুল ইসলাম যেভাবে সুবাশ রবিদাসকে মারপিট করেছে তাকে মেরে ফেলার জন্যই করেছে। দুই বছর পূর্বেও তিনি তাদের দ্বারা হামলা শিকার হন।

সিরাজুল ইসলাম পাঠান জানান, তাতে তেমন মারপিট করা হয় নি। মামলা তুলে নেওয়র জন্য সামান্য মারপিট করেছি। মামলা তুলে নিলে তার সঙে কোন দ্বণ্ড থাকবে না।বজলার রহমান জানান, তিনি কিছুই জানেন না। অতীতের ঘটনার সাথেও তিনি জড়িত ছিলেন না। সুবাশ বা তার পরিবারকে কখনই হুমকি দেনদিন বলে তিনি দাবি করেন। ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথ জানান, এঘটনায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন শ্যামলাল রবিদাস। তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়