৮ বৈশাখ, ১৪৩১ - ২১ এপ্রিল, ২০২৪ - 21 April, 2024
amader protidin

কাউনিয়ায় আওয়ামীলীগ নেতা সেলিমের উপর হামলা

আমাদের প্রতিদিন
7 months ago
195


কাউনিয়া(রংপুর)প্রতিনিধি:

রংপুরের কাউনিয়ায় পুলিশের উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগ নেতা সাইফুল ইসলাম সেলিমের উপর হামলা ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় থানায় বাদী পক্ষ লিখিত অভিযোগ দিতে গেলে পুলিশ অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন নাই। 

বৃহস্পতিবার (০৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধায় কাউনিয়া বালিকা বিদ্যালয় মাঠে শহীদ মিনারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ তুলে ধরেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও শহীদবাগ ইউনিয়নের সাবেক সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম।

লিখিত অভিযোগে আশরাফুল ইসলাম বলেন, শনিবার (০২ সেপ্টেম্বর) রাত ১১ টার দিকে শহীদবাগ বাজারে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হান্নান ও তার ছোট ভাই আব্দুর রউফের নেতৃতে তাদের লোকজন দেশীয় অস্ত্র দিয়ে অতর্কিত উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি সাইফুল ইসলাম সেলিমের উপর হামলা চালায়। থানা পুলিশ সেখানে উপস্থিতিতে এ হামলার ঘটনার ঘটে । পরে গুরুত্বর আহত অবস্থায় সাইফুল ইসলাম সেলিমকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কেন সাইফুল ইসলাম সেলিমের উপর হামলা হয়েছে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আশরাফুল ইসলাম বলেন, সাইফুল ইসলাম সেলিম বেঁচে থাকলে আব্দুল হান্নান আগামীতে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এবং শহীদবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হতে পারবে না। সে কারণে সাইফুল ইসলাম সেলিমকে পথ থেকে চিরতরে সরিয়ে দিতে তাকে হত্যার চেষ্টায় পরিকল্পিতভাবে তার উপর এ হামলা ঘটনা ঘটিয়েছে। 

আশরাফুল ইসলাম বলেন, একজন প্রকৃত মুজিবের সৈনিক সাইফুল ইসলাম সেলিমকে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় তার ছোট ভাই রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ১৪ জনকে অভিযুক্ত করে কাউনিয়া থানায় অভিযোগ দিতে গেলে অদৃশ্য কারণে পুলিশ অভিযোগ গ্রহণ না করে ফেরত দিয়েছে। শনিবারের মধ্যে অভিযোগপত্র গ্রহণ করে মামলা নথি ভুক্ত করা না হলে পরবর্তী যেকোন পরিস্থিতির জন্য থানা প্রশাসনকে সকল দায় দায়িত্ব নিতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব, সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক আবু ফেরদৌস মহসিন হিরা, শহীদবাগ ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম, বালাপাড়া ইউনিয়নের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিলদার আলী, যুবলীগ নেতা রানা চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সালাম,উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিজান, যুবলীগ নেতা ইউসুফ আলী, আব্দুল লতিফ, ডালিম প্রমুখ।

তবে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল হান্নান তার বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সাইফুল ইসলাম সেলিম আমাদের দলের লোক। সে উপজেলা কমিটির সহসভাপতি। আর সেলিমের সাথে আমার কোন দ্বদ্ব নাই, সে আমার প্রতিপক্ষও নয়। সেদিন রাতে সাইফুল বাজারে অকথ্যভাষায় গালাগালিজ করলে বাজারে থাকা অনেকে প্রতিবাদ করে। পরে উত্তোজনা দেখা দিলে তিনি ও থানা পুলিশ সবাইকে শান্ত করেন এবং সকলেই বাড়ীতে চলে যায়। এরপর সাইফুল কিভাবে আহত হয়েছেন তা তিনি (আমি) জানেন না। তিনি পরিষদে বসে থাকা অবস্থায় জানতে পারেন সাইফুলকে মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

পুলিশের উপস্থিতি হামলার ঘটনা এবং অভিযোগ না নেওয়ার বিষয়ে কাউনিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোন্তাছের বিল্লাহ বলেন, পুলিশের উপস্থিতিতে হামলার কোন ঘটনাই ঘটে নাই। ওই দিন রাতে শহীদবাগ বাজারে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তোজনা দেখা দিলে দ্রæত পুলিশ সেখানে যায় এবং সবাইকে শান্ত করে। পরে বাজারে পিছনে রেললাইনে ধারে মারামারির ঘটনা ঘটে। আর আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম সেলিম আহত হওয়ার ঘটনায় এখন পর্যন্ত লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায় নাই।    অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়