১০ ফাল্গুন, ১৪৩০ - ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ - 22 February, 2024
amader protidin

আপাতত দল ভাঙ্গার কোন সম্ভাবনা নেই....  রংপুরে জিএম কাদের

আমাদের প্রতিদিন
1 month ago
90


নিজস্ব প্রতিবেদক:

দীর্ঘদিন থেকে জাতীয় পার্টি ষড়যন্ত্রের শিকার, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এর ব্যাপক জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে তার প্রতিপক্ষরা সবসময় চেষ্টা করেছেন। সেই ১৯৯১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত দল ভাঙ্গাসহ নানা রকম ষড়যন্ত্র হয়েছে। এবারেও দলের সদস্যদের ভুল বুঝিয়ে এ ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। তবে আমাদের দলের সদস্যরা তাদের ভুলবুঝতে পেরেছে। তারা তাদের ভুলটা বুঝতে পেরেছে। তাই বলতে পারি আপাতত দল ভাঙ্গার কোন সম্ভাবনা নেই বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। তিনি আরো বলেন, জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে যে সব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে, সেই সিদ্ধান্তগুলো দলের নেতাকর্মীরা উপলব্ধি করে, ভালোভাবে নিয়েছে।

শনিবার (২০ জানুয়ারী) বিকেলে ৫ দিনের সফরে রংপুরে এসে নগরীর সেনপাড়াস্ত স্কাই ভিউ এর সামনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিরোধী দল নিয়ে গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি বলেন, গত সংসদেও বিরোধী দল হিসেবে জাতীয় পার্টি ছিলো। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ নৌকা প্রতীক নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আসন পেয়ে সরকার গঠন করেছে। জাতীয় পার্টি ১১ টি আসন নিয়ে সংসদে প্রতিনিধিত্ব করছে। সেই কারনে আমরা মনে করি জাতীয় পার্টি বিরোধী দলে থেকে ভুমিকা রাখতে পারে। ইতিম্যে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আমাকে (জিএম কাদেরকে) বিরোধীদলীয় নেতা, ব্যারিষ্টার আনিসুল মাহমুদ এবং মুজিবুল হক চুন্নুকে বিরোধী দলীয় চীফ হুইপ প্রস্তাব করে একটি রেজুলেশন আজকে সংসদের স্পীকারের কাছে পত্র মারফত পাঠানো হয়েছে। আশা করছি, ৩০ জানুয়ারী সংসদ বসার পর বুঝা যাবে, কে বিরোধী দলীয় নেতা। তবে বিরোধী দল হলে সংসদে কার্যকর বিরোধী দলের ভুমিকা পালন করবো, সরকারের গঠনমুলক সমালোচনা করবো। সেই সাথে খারাপ বিষয়গুলো তুলে ধরে সরকারের সঠিক পথে পরিচালনা করতে সহায়তা করা।

বিরোধী দল বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে কোন ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে কিনা এই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত কোন ধরণের ইঙ্গিত দেয়া হয়নি। এসময় তিনি বলেন, যদি জাতীয় পার্টিকে বিরোধী দল করা না হয়, তারপরও জাতীয় পার্টি দেশের মানুষের কল্যাণে কাজ করবে, সংসদে মানুষের অধিকার নিয়ে কথা বলবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান ও রসিক মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান ও রংপুর মহানগর সাধারণ সম্পাদক  এস এম ইয়াসি, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানে উপদেষ্টা আলা উদ্দিন মিয়া, কেন্দ্রীয়  সাংগঠনিক সম্পাদক ও রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব হাজী আব্দুর রাজ্জাক,  কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক সম্পাদক আজমল হোসেন লেবু, কেন্দ্রীয় সদস্য ও মহানগর জাতীয় পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি লোকমান হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গোলাম মোহাম্মদ কাদের রংপুর সদর ৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর ৫ দিনের সফরে রংপুরের এসেছেন তিনি।

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়