১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০ - ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ - 27 February, 2024
amader protidin

জাত-পাত,পেশা-ভাষা ও সংস্কৃতির কারণে হরিজন জনগোষ্ঠীর প্রতি ভেদাভেদ-বৈষম্যের প্রতিবাদে সংহতি সমাবেশ

আমাদের প্রতিদিন
1 year ago
110


খবর বিজ্ঞপ্তির:

হরিজন অধিকার আদায় সংগঠন, রংপুর জেলার  উদ্যোগে ১৮ জানুয়ারি ২০২৩ দুপুর ২ টায়,কাচারি বাজার চত্ত্বরে  জাত-পাত,পেশা-ভাষা ও সংস্কৃতির কারণে হরিজন জনগোষ্ঠীর প্রতি ভেদাভেদ-বৈষম্যের প্রতিবাদে সংহতি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।হরিজন অধিকার আদায় সংগঠন রংপুর জেলার সহ-সভাপতি রাজু বাসফোর এর সঞ্চালনায় সংহতি সমাবেশে সভাপতিত্ব  করেন সংগঠনের সভাপতি সুরেশ বাসফোর। সমাবেশে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি রংপুর জেলার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহদাত হোসেন, বাসদ(মার্কসবাদী),রংপুর জেলার সদস্য সচিব আহসানুল আরেফিন তিতু, বাংলাদেশ নারী মুক্তি কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুন্নাহার খানম শিখা, জাতীয় কবিতা পরিষদ

রংপুর বিভাগের সহ-সভাপতি মৌসুমি শংকর রিতা,নগর-পরিকল্পনাবিদ ও গবেষক ওয়াকিমুল ইসলাম শাকিল।হরিজন অধিকার আদায় সংগঠনের পক্ষ থেকে নিজেদের কথা তুলে ধরেন উপদেষ্টা লিটন বাসফোর,কানাই বাসফোর,সবরন বাসফোর,কানাই বাসফোর,সাধারণ সম্পাদক সাজু বাসফোরসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। বক্তারা বলেন যে সভ্য সমাজে হরিজন জনগোষ্ঠীর প্রতি এরকম বৈষম্য অমানবিক ও নিন্দনীয়।হরিজনদের এই পরিচ্ছন্নতা পেশাকে রাষ্ট্রীয়ভাবে সামাজিক মর্যাদা দেয়া উচিত।জীবন-মান উন্নয়নে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ খুবই জরুরি। হরিজন জনগোষ্ঠীর প্রতি চলমান বৈষম্য দূরীকরণে দেশব্যাপী প্রতিবাদ গড়ে তোলা দরকার।শিক্ষায় যোগ্যতায় এগিয়ে যেতে হলে লড়াই করতে হবে চলমান অন্যায়ের বিরুদ্ধে। বৈষম্যকে অন্যায় হিসেবে গণ্য করে করতে হবে।বৈষম্যের কোন ঘটনা ঘটলে তাৎক্ষণিক প্রশাসনিক উদ্যোগ নিতে হবে।আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।আরো বলেন আমাদের আপামর জনগনসহ শিক্ষিত সচেতন মানুষকে ভেদাভেদ ভুলে এক মানুষ হয়ে দাঁড়াতে হবে।কোন এক গোষ্ঠীকে বৈষম্যের জালে আটকে রেখে নিজেকে মুক্ত ভাবা যায় না।প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক পরিবেশনা করে হরিজন মুক্তির কান্ডারী সাংস্কৃতিক কেন্দ্র, রংপুর জেলা

সর্বশেষ

জনপ্রিয়