৩ আষাঢ়, ১৪৩১ - ১৮ জুন, ২০২৪ - 18 June, 2024
amader protidin

অদম্য মেধাবীদের গল্প দরিদ্রতা ওদের থামিয়ে রাখতে পারেনি

আমাদের প্রতিদিন
9 months ago
296


চিলমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে ৩অদম্য মেধাবী শিক্ষার্থী ২০২৩সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে চিলমারীবাসীকে তাক লাগিয়ে স্ব-স্ব দুঃখি পরিবারের মুখে এনে দিয়েছে সুখের হাসি।দারিদ্রতা ওদের থামিয়ে রাখতে পারেনি। শিক্ষা জীবনে প্রথম সাফল্য ওদের এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়কে আরও দৃঢ় করেছে। তারপরও ভাল কলেজে ভর্তির সুযোগ নিয়ে ওরা হতাশাগ্রস্থ।এখন কি হবে তাদের ভবিষ্যৎ, কে যোগান দিবে তাদের উচ্চ শিক্ষার খরচ ? তা নিয়ে চিন্তিত এসব মেধাবী শিক্ষার্থীর পরিবার। 

মোছাঃ শারমিন আক্তার শিমুঃ ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারীতে অবস্থিত শরীফেরহাট এম ইউ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে মোছাঃ শারমিন আক্তার শিমু। উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের পূর্ব মাচাবান্দা এলাকার দিনমজুর মোঃ শফিউল ইসলাম ও মোছাঃ গোলাপি বেগমের একমাত্র কন্যা শিমু। নিজে সারাদিন অন্যের জমিতে কাজ করে যা উপার্জন করেন তাই দিয়ে কোন রকমে সংসার চলে শিমুর বাবার। নুন আনতে পানতা ফুরায় অবস্থায় সামান্য উপার্জনে সংসার চালানোর পর মেয়ের লেখা-পড়ার খরচ যোগান দেয়া শিমুর বাবার পক্ষে অসম্ভব প্রায়। অনেকের সহায়তায় ও নিজ চেষ্টায় লেখা-পড়া করে শিমু ভালো ফলাফল করেছে। মেয়ের ভালো ফলাফলে খুশি হলেও মেয়ের উচ্চ শিক্ষা নিয়ে যেন মাথায় বাজ পড়েছে  মা গোলাপী বেগমের। শারমিন আক্তার শিমু ডাক্তার হয়ে মানুষের সেবা করতে চায়।

মোছাঃ রুকাইয়া আক্তার প্রিয়ন্তিঃ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষায় কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারীতে অবস্থিত শরিফেরহাট এমইউ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান শাখায় জিপিএ-৫ পেয়েছে রুকাইয়া আক্তার প্রিয়ন্তি। ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে অবস্থিত জোড়গাছ পুরাতন বাজার এলাকার ফরিয়া ব্যবসায়ী মো.ফারুক ইসলাম ও গৃহিনী মোছা.রুজিনা বেগমের ১ম সন্তান রুকাইয়া আক্তার প্রিয়ন্তি। মৌসুম অনুযায়ী বিভিন্ন পণ্য কেনা-বেচা করে যা উপার্জন হয় তাই দিয়ে কোন রকমে সংসার চলে প্রিয়ন্তির বাবার। সামান্যূ ব্যবসা দিয়ে যে সামান্য উপার্জন দিয়ে দুটো দুই মেয়ের লেখা-পড়া এবং সংসার খরচ যোগান দেয়ার পর প্রিয়ন্তির লেখা-পড়ার খরচ যোগান দেয়া প্রিয়ন্তির বাবার পক্ষে অসম্ভব প্রায়। অভাব অনোটনের মধ্যদিয়ে নিজ প্রচেষ্টায় প্রিয়ন্তি এবারে এসএসসিতে জিপিএ-৫অর্জন করেছে। প্রিয়ন্তি উচ্চ শিক্ষা অর্জন করে মানুষের সেবা করতে চায়।

মোছাঃরাবেয়া বাসরীঃ পিতার অভাবী সংসারের অভাবকে জয় করে ২০২৩সালের এসএসসি পরীক্ষায় কুড়িগ্রাম জেলার চিলমারীতে অবস্থিত শরীফেরহাট এমইউ উচ্চ বিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে মোছাঃ রাবেয়া বাসরী। উপজেলার রমনা ইউনিয়নের জোড়গাছ পুরাতন বাজার এলাকার মোঃ দেলোয়ার হোসেন ও মোছাঃ হাজেরা বেগমের মেয়ে রাবেয়া বাসরী। ঢাকায় গার্মেন্টেস এ চাকুরী করে যা আয় হয় তাই দিয়ে সংসার এবং ২মেয়ের লেখা পড়ার খরচ যোগান দিতে হয়।তার সামান্য আয় দিয়ে বর্তমানে দুই সন্তানের লেখা-পড়ার খরচ যোগান দেয়া দেলোয়ার হোসেনের পক্ষে অসম্ভব।মেয়ের উচ্চ শিক্ষার জন্য বিত্তবানদের সহযোগীতা কামনা করেন রাবেয়ার বাবা দেলোয়ার হোসেন।

 

 

 

 

 

 

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়