৩১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ১৪ জুন, ২০২৪ - 14 June, 2024
amader protidin

খানসামায় পরিত্যক্ত রাস্তার ধারে পেঁপে চাষে কৃষক আলতাফের বাজিমাত

আমাদের প্রতিদিন
9 months ago
425


খানসামায় (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ

রাস্তার দুই পাশে বিস্তৃর্ণ ফসলের মাঠ। রাস্তার দুই ধার পরিত্যক্ত অবস্থায়, জন্মেছে আগাছা ও জঙ্গলও। সেই আগাছা পরিষ্কার করে কৃষিবিদদের প্রেরণায় রাস্তার দুই ধারে পেঁপে থাইল্যান্ড গ্রীন ল্যাডি জাতের ৪শ পেঁপে গাছ লাগিয়েছেন দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার কৃষক আলতাফ হোসেন। এসব পেঁপে ইতিপূর্বে বিক্রি শুরু করেছেন তিনি। তার এরকম উদ্যোগ কে সাধুবাদ জানাচ্ছেন অনেকেই।

উপজেলার খামারপাড়া ইউনিয়নের জমিদার নগর থেকে বলরাম বাজার যাওয়ার রাস্তায় দুই ধারে পেঁপে গাছ লাগিয়েছেন আলতাফ। দীর্ঘদিন পরিত্যক্ত হিসেবে জঙ্গল দিয়ে ভরে থাকা জায়গাটিতে এখন সারিবদ্ধ পেঁপে গাছ আর গাছে ঝুলে আছে সবুজ পেঁপে। গাছে ঝুলে থাকা সবুজ পেঁপে দেখেই প্রাণ জুড়ে যায় পথচারীদের।

আলতাফ হোসেন জানান, পেঁপে গাছের প্রথম ধাপে প্রতি গাছ থেকে ৫ থেকে ৭ কেজি করে প্রতি সপ্তাহে গড়ে ১০ মণের বেশি পেঁপে উত্তোলন করেছেন। বর্তমান বাজারে প্রতিমণ পেঁপে তিনি ৭০০থেকে ৮০০ টাকা দরে বিক্রি করছেন বলে জানান তিনি।

কৃষক আলতাফ হোসেন বলেন, আমি ছোট থেকেই বাবার সাথে বিভিন্ন ধরনের চাষ করি। আমি সবসময়ই কৃষি অফিসারের পরামর্শে চাষ আবাদ করি। উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে এবার নতুন করে পেঁপে চাষ করার পরামর্শ পাই। এরপর আমি রাস্তার পাশে পরিত্যক্ত জায়গা জঙ্গল হওয়ায় আমি পরিষ্কার করে পরীক্ষা করার জন্য রাস্তার ধারে ৪০০শ পেঁপে গাছ লাগাই। আল্লাহ রহমতে গাছে পেঁপে ধরেছে। প্রতি সপ্তাহে পেঁপে বিক্রি করেছি এবং ভালো মানের দামেও পাচ্ছি। আমি আগামীতে আমার চাষ আবাদ জমি ও রাস্তা দুই ধারে বেশি করে পেঁপে চাষ করবো।

ইমরান নামের এক পথচারী বলেন, আমি এই পথ দিয়ে হাট বাজারে যাওয়া আশা করি৷ কিন্তু রাস্তাটি পাকা না হওয়াতে রাস্তার ধারে পরিত্যক্ত জায়গায় জঙ্গল হয়। কৃষক আলতাফ সেই জঙ্গল গুলি পরিষ্কার করে এবার পেঁপে চাষ করেন। এতে তিনি লাভবান হওয়ার পাশাপাশি রাস্তাটির সৌন্দর্য ফুটে উঠেছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকতা কৃষিবিদ ইয়াসমিন আক্তার বলেন, আলতাফ হোসেন আমার কাছে আসেন পরামর্শ নিতে। কৃষি বিভাগের পরামর্শে এবছর সাড়ে তিনমাসে গ্রীন ল্যাডি পেঁপে চারা লাগিয়েছেন। বর্ষার মৌসুমে অন্যান্য সবজি কম থাকায় পেঁপে চাহিদা বাড়ে। তিনি বিষয়টি মাথায় রেখে এ পেঁপে চাষ করেছেন। ইতিমধ্যে বাজারে ভালো মূল্যে বিক্রি করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি পেঁপে চাষ করে ভালো লাভবান হবেন বলে আমরা আশা করি।

উল্লেখ্য যে, আলতাফ হোসেন আদা চাষ করে ২০১৬ সালে দ্বাদশ সিটি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা বছরের শ্রেষ্ঠ কৃষি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হিসেবে রানার-আপ হয়েছিলেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়