১৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ২৮ মে, ২০২৪ - 28 May, 2024
amader protidin

চিলমারীতে থামছে না আলু, পেঁয়াজসহ কাঁচা বাজারের দাম

আমাদের প্রতিদিন
7 months ago
393


চিলমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে থামছে না আলু,পেঁয়াজসহ কাঁচা বাজারের দাম। নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের বাজার দরে উর্ধ্বগতির লাগাম টানতে নতুন করে ডিম,আলু ও পেঁয়াজের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছিল সরকার। বেধে দেয়া মূল্য অনুযায়ী প্রতি পিস ডিমের দাম ১২টাকা, আলুর কেজি ৩৫থেকে ৩৬টাকা এবং পেঁয়াজের দাম ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল। সরকারের এই দাম নির্ধারণের মাস পেরিয়ে গেলেও চিলমারী উপজেলার কোন বাজারে এর কোনো প্রভাব দেখা যায়নি। নতুন দামে পণ্য বিক্রির নির্দেশনা ব্যবসায়ীরা পেলেও, মানছে না কেউই।

জানা গেছে,দেশব্যাপী নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজার দরের উর্ধগতির লাগাম টানতে সরকারী ভাবে তিনটি পণ্যের নতুন করে দাম নির্ধারন করা হয়েছিল। নতুন নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী ডিম প্রতি পিস ১২টাকা,আলু প্রতি কেজি ৩৫টাকা থেকে ৩৬ টাকা টাকা এবং পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৬৪টাকা থেকে ৬৫টাকা বেধে দেয়া হয়েছিল। সরকারীভাবে পণ্য তিনটির মূল্য নির্ধারন করে দেয়ার মাস পেরিয়ে গেলেও এটি কার্যকর হচ্ছে না। বাজারগুলোতে ১২টাকা পিস হারে ডিম পাওয়া গেলেও আলু এবং পেঁয়াজের দাম দিন দিন বেড়েই চলেছে। উপজেলার বিভিন্ন বাজার এলাকা ঘুরে দেখা গেছে বড় আলু(হল্যান্ড) ৫৫-৬০টাকা, দেশি আলু ৭০-৮০টাকা এবং পেঁয়াজ চালানী ৮০ টাকা, দেশি ১০০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন,সরকারের নির্ধারণ করা দামে আমরা কিনেও আনতে পারিনি,তাহলে ওই দামে বিক্রি করবো কী করে?

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন বাজারে গিয়ে দেখা গেছে,কোন কোন ডিম বিক্রেতা ১২টাকা দরে ডিম বিক্রি করলেও অনেকে প্রতিহালি ডিম ৫০-৫৫টাকা দরে বিক্রি করছে। আলু হল্যান্ড ৫৫টাকা, দেশি ৮০টাকা এবং পেঁয়াজ চালানী ৮০টাকা,দেশি ১০০টাকা দরে বিক্রি করছে। এছাড়াও আদা প্রতিকেজি ৩০০টাকা,কাচা মরিচ ২০০টাকা,পটল ৭০টাকা ও বেগুন ৭০টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এসময় থানাহাট বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী ছক্কু মিয়া,চান মিয়া,আমজাদ হোসেন,রুবেল মিয়া,ছকমল হোসেন,শাহ আলমসহ অনেকে জানান,সরকারীভাবে বেধে দেয়া দামে আমরা আলু ও পেঁয়াজ কিনতেও পারি না বিক্রি করবো কেমন করে? এদিকে উপজেলার বাজারগুলোতে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে কোন তদারকি না থাকায় ভোক্তাদের বেশী দামে পণ্য কিনতে হচ্ছে বলে সচেতন মহলের দাবী।

সরকার নির্ধারিত মূল্যে আলু ও পেঁয়াজ বিক্রি না করার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো.রাফিউল আলম জানান,তিন পণ্যের বাজার দর বেধে দেয়ার কোন চিঠি পাননি। বিষয়টি নিয়ে ভোক্তা অধিকারের সাথে কথা বলবেন বলে জানান তিনি।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়