৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ১৯ মে, ২০২৪ - 19 May, 2024
amader protidin

কাউন্সিলার হারাধন রায় হারার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে নগরীরতে বিক্ষোভ মিছিল মানববন্ধন ও স্বারক লিপি প্রদান

আমাদের প্রতিদিন
1 month ago
102


নিজস্ব প্রতিবেদক:

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ, রংপুর মহানগর শাখার সভাপতি, মেট্রোপলিটন পশুরাম থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বাংলাদেশ ক্ষত্রিয় সমিতি কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এবং রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শ্রী হারাধন রায় হারার বিরুদ্ধে দায়ের করা  মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও মেট্রোপলিটন পুলিশ কমশিনার বরাবরে স্বারক লিপি প্রদান করেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর জেলা ও মহানগরের নেতৃবৃন্দ।

আজ (০২ মার্চ ) বেলা পনে ১১টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ জেলার সভাপতি রাম জীবন কুন্ডু, সহ-সভাপতি শ্রী ধীমান ভট্টটচার্য্য, অরুপ কুমার দত্ত, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. প্রশান্ত কুমার রায়, সহ-সভাপতি তাপস সরকার পাপ্পু, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানার সভাপতি খোকন সরকার, সাধারণ সম্পাদক পীযুষ সরকার ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদ রংপুর জেলার সাধারণ সম্পাদক স্বপন কুমার রায়সহ বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ রংপুর মেট্রোপলিটন বিভিন্ন থানার নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ময়না কুটির কোল্ড স্টোরেজের সামনে যানজট নিরসনকে কেন্দ্র করে হারাধন রায় হারার বিরুদ্ধে হারাগাছ থানায় একটি মিথ্যা বানোয়াট মামলা দায়ের করেন ময়না কুটির কোল্ড স্টোরেজ কর্তৃপক্ষ। হারাগাছ থানা পুলিশ কোন প্রকার প্রাথমিক তদন্ত ছাড়াই মামলাটি আমলে নেন। যা বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের পক্ষে মেনে নেয়া কষ্ট কর।

এসময় বক্তারা কাউন্সিলর হারাধন রায় হারার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলাকে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্র মূলক বলে অবহিত করে অবিলম্বে তা প্রত্যাহারের দাবি জানান তারা।

মানববন্ধণ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

এ সময় রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবরে স্বারক লিপি প্রদান করা হয়। স্বারক লিপিটি গ্রহন করেন অতিরিক্ক পুলিশ কমিশনার সায়ফুজ্জামান ফারুকী।

উক্ত মামনববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিলে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ জেলা, মহানগর এবং বিভিন্ন থানা কমিটির নেতৃবৃন্দ এবং ৪ নং ওয়ার্ড বাসী অংশ গ্রহন করেন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়