৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ১৮ মে, ২০২৪ - 18 May, 2024
amader protidin

গোলাম হাবিব মহিলা কলেজ ২বছরেও শেষ হয়নি মুজিব কেল্লার নির্মাণ কাজ

আমাদের প্রতিদিন
2 weeks ago
75


চিলমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে অবস্থিত গোলাম হাবিব মহিলা ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাসে মুজিব কেল্লার ভবন নির্মাণ কাজ শুরুর ২বছর পেরিয়ে গেলেও কাজ শেষ না করে ফেলে রাখার অভিযোগ উঠেছে।জেলার প্রথম মুজিব কেল্লার ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন চলে যাওয়ায় প্রকল্পের কাজ নিয়ে এলাকাজুড়ে সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। প্রকল্পের কাজ শুরুর নামে বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী ও তৈরিকৃত ব্লক যত্রতত্র ফেলা রাখায় প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক—শিক্ষার্থীদের ভোগান্তিসহ পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টদের দাবি।

জানা গেছে,দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধিনে মুজিব কিল্লা নির্মাণ,সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় কুড়িগ্রাম জেলাধীন চিলমারী উপজেলার গোলাম হাবিব মহিলা ডিগ্রি কলেজ মাঠে মুজিব কেল্লা নির্মাণ কাজ শুরুর আদেশ দেয়া হয় ২০২২ সালের ১৫জুন তারিখে। মুজিব কেল্লা প্রকল্পের ১৬০ফুট দৈর্ঘ ও ৫০ফুট প্রস্তের ১টি ভবন নির্মাণ,পার্শ¦ রাস্তা নির্মাণ, চার পাশে ব্লক দিয়ে গার্ডেনসহ আনুষঙ্গিক নির্মাণ কাজের জন্য লালমনিরহাট আদিতমারী এলাকাস্থ মেসার্স আব্দুল হাকিম নামক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজের চুক্তি হয় ২কোটি ৪৯লক্ষ ৩২হাজার ৭০৫টাকা।ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষে জেলার রৌমারীস্থ হামিদুর রহমান নামের এক ঠিকাদার কাজটি নেন। মুজিব কেল্লার নির্মাণ কাজ ২০২২সালের ৩০নভেম্বর তারিখে শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ঠিকাদারের লোকজন বিগত ২বছরেও কাজ শেষ না করে নির্মাণ সামগ্রীসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র এলোমেলোভাবে ফেলে রাখার অভিযোগ উঠেছে। এতে প্রতিষ্ঠানটির পাঠদান কার্যক্রমসহ দাপ্তরিক কার্যক্রম ভেঙে পড়েছে। প্রকল্পের কাজ শুরুর নামে বিভিন্ন নির্মাণ সামগ্রী ও তৈরিকৃত ব্লক যত্রতত্র ফেলা রাখায় প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষক—শিক্ষার্থীদের ভোগান্তিসহ পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টদের দাবি।

গতকাল বৃহস্পতিবার সরেজমিনে কলেজ ক্যাম্পাসে গিয়ে দেখা যায়, ক্যাম্পাসের যত্রতত্র পড়ে আছে তৈরিকৃত ব্লক ও নির্মাণ সামগ্রী। পূর্ব—পশ্চিমে দীর্ঘ নির্মাণাধীন ভবনের পিলারের উপরে ছাদ ঢালাই দিয়ে ফেলে রাখা হয়েছে। কলেজের শ্রেণি পাঠদানের দুই কক্ষের একটি ভবন ঠিকাদারের লোকজনের থাকার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। এবং ক্যাম্পাসে সিমেন্টের গাড়ি নিতে ভেঙে ফেলা হয়েছে কলেজে মূল ফটক।অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে কলেজ তো নয় যেন পরিত্যক্ত কোন ক্যাম্পাস। দীর্ঘ দিন ধরে নিয়ম বহির্ভূতভাবে ধীর গতিতে নির্মাণ কাজ চলতে থাকলেও গত ৪মাস ধরে অজানা কারণে কাজ একেবারেই বন্ধ রয়েছে।সেখানে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কোন লোক কিংবা নিরাপত্তা কর্মিকেও দেখা যায়নি। এলাকাবাসী জানায়, কলেজের ভিতরে মুজিব কেল্লার ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করা হলেও ঠিকাদারের অবহেলায় কাজটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ রয়েছে। মুজিব কেল্লার কাজে ঠিকাদারের এত অবহেলা কেন?  

মুজিব কেল্লা নির্মাণ প্রকল্পের ঠিকাদার হামিদুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,আগামী রোববার থেকে কাজ শুরু করা হবে।

মুজিব কিল্লা নির্মাণ,সংস্কার ও উন্নয়ন প্রকল্প কুড়িগ্রামের দায়িত্বে থাকা উপ—সহকারী প্রকৌশলী মো.আবু বকর সিদ্দিক জানান,ঠিকাদারকে কাজ শেষ করার জন্য মৌখিকভাবে অনেকবার বলে কোন কাজ না হওয়ায় অফিসিয়ালি চিঠি দেয়া হয়েছে। তাতেও ঠিকাদার গুরুত্ব দিচ্ছে না। তবে আগামী সপ্তাহে কাজ শুরু করবেন বলে ঠিকাদার আমাকে জানিয়েছেন।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার মো.মোশারফ হোসেন জানান,মুজিব কেল্লার কাজটি চালু করতে ঠিকাদারের সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হয়েছে। তারা ঈদের পরে আসার কথা জানিয়েছে। তবে আগামী সপ্তাহে কাজ শুরু করবে বলে জানা গেছে।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়