১ আষাঢ়, ১৪৩১ - ১৫ জুন, ২০২৪ - 15 June, 2024
amader protidin

চিলমারীতে বিধি বহির্ভূতভাবে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

আমাদের প্রতিদিন
3 weeks ago
41


চিলমারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের চিলমারীতে অবস্থিত চিলমারী মহিলা ডিগ্রী কলেজের গভর্নিং বডিতে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি বহির্ভূতভাবে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ কতৃর্ক নির্বাচন স্থগিতের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন কলেজটির সাধারণ শিক্ষক বৃন্দ।সোমবার দুপুরে কলেজের শিক্ষক মিলনায়তনে এ সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে সাধারণ শিক্ষকদের পক্ষ থেকে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সহকারী অধ্যাপক মো.আবু হানিফা। লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান,চিলমারী মহিলা ডিগ্রী কলেজের নতুন গভর্নিং বডি গঠনের লক্ষ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মোতাবেক বর্তমান দায়িত্বে থাকা গভর্নিং বডি গত ২০ফেব্রুয়ারী তারিখের সভায় ৩সদস্য বিশিষ্ট একটি নির্বাচন কমিশন গঠন করেন। নির্বাচন কমিশন ৩জন হলেন—রিটার্নিং অফিসার পদাধিকার বলে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জীতেন্দ্রনাথ বর্মন, মো.ওয়াজেদুল হাসান ও মো.আব্দুল বারী। গঠিত নির্বাচন কমিশন গভর্নিং বডিতে শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনের জন্য তফসিল ঘোষনা করেন ২৮এপ্রিল তারিখে।

ঘোষিত তফশীল অনুযায়ী গত ০৯মে ২০২৪ইং তারিখে নির্বাচন কমিশনের নিকট থেকে যথানিয়মে আমরা মনোনয়নপত্র গ্রহণ করি।অতঃপর গত ১২মে তারিখে আমরা কমিশনের নিকট মনোনয়নপত্র দাখিল করি।গত ১৩মে তারিখে মনোনয়নপত্র যাচাই—বাছাই পূর্বক গত ১৫মে তারিখে বৈধ প্রার্থীদের চুড়ান্ত তালিকা নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেন। তফশীল অনুযায়ী সোমবার(২০ মে২০২৪) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোট গ্রহণের কথা ছিল। কিন্তু দুঃখ জনক হলেও সত্য যে,নির্বাচন কমিশনের অপর ২জন সদস্যকে বাদ রেখে রিটার্নিং অফিসার ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জীতেন্দ্রনাথ বর্মন গত ১৬মে তারিখে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচনী সকল বিধি—বিধানকে উপেক্ষা করে অনিবার্য কারণ দেখিয়ে নির্বাচন স্থগিত করনের একটি নোটিশ জারি করেন।

তিনি আরও জানান,কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জীতেন্দ্রনাথ বর্মন প্রশাসনিক ক্ষমতা কুক্ষিগত করে তার ইচ্ছা মতো মনগড়া কমিটি গঠনের লক্ষ্যে ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে কলেজের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করছেন বলে আমরা মনে করছি। শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন একটি নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়া।সাধারণ শিক্ষকগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে তাদের নির্বাচিত প্রতিনিধিদেরকে গভর্নিং বডিতে সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করে থাকেন।এ ধরনের একটি সুষ্ঠু প্রক্রিয়াকে অপকৌশলের আশ্রয় নিয়ে বিধি বহিভূর্তভাবে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জীতেন্দ্রনাথ বর্মন কতৃর্ক শিক্ষকদের ভোটাধিকার হরণ করায় আমরা সংক্ষুব্ধ হয়ে তার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,মোছাঃ আকতারা বেগম(প্রার্থী),মোঃ নাজমুল হুদা পারভেজ (প্রার্থী),মোঃ রফিকুল ইসলাম(প্রার্থী),সহকারী অধ্যাপক মোঃআমিনুল ইসলাম,কামরুজ্জামান,মুহাম্মদ আবুল কাশেম আজাদ,জিয়াউল করিম, হাসান সাঈদ,আবু সাঈদ,ফজলুল হক,প্রভাষক আব্দুল্লাহ আল মামুন,মোরশেদা খানম,মাসুমা আক্তার,রিফাহ যাঈমা তটিনী, নিহারিকা শারমিন প্রমুখ।

নির্বাচন কমিশনের সদস্য মো.ওয়াজেদুল হাসান রেজা জানান,শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী সোমবার(২০মে) নির্বাচন অনুষ্ঠানের তারিখ ছিল। সে মোতাবেক ভোট গ্রহণের জন্য সকাল সাড়ে ৯টায় কলেজে গিয়ে রিটার্নিং অফিসারের একক স্বাক্ষরিত শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচন প্রক্রিয়া অনিবার্য কারনে স্থগিতের নোটিশ দেখতে পাই। এ বিষয়ে রিটার্নিং অফিসার ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জীতেন্দ্রনাথ বর্মন আমাকে কিছু জানাননি।

এ বিষয়ে কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও রিটার্নিং অফিসার জীতেন্দ্রনাথ বর্মন জানান,শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনকে ঘিরে শিক্ষকদের মধ্যে দুটি গ্রুপে বিভক্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে দুই গ্রুপের মাঝে হাতাহাতিরমতো ঘটনা ঘটেছে।নির্বাচনকে ঘিরে উভয় গ্রুপের মধ্যে বড় ধরনের সংঘাতের আশঙ্কা থাকায় নির্বাচন প্রক্রিয়াকে স্থগিত করা হয়েছে।

 

 

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়