১১ আষাঢ়, ১৪৩১ - ২৫ জুন, ২০২৪ - 25 June, 2024
amader protidin

চেয়ারম্যান সুজন : ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ও সীমা নির্বাচিত

আমাদের প্রতিদিন
3 weeks ago
113


গঙ্গাচড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে

গঙ্গাচড়া (রংপুর) প্রতিনিধি:

রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে  চেয়ারম্যান হলেন বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা মোকাররম হোসেন সুজন। ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপি থেকে সদ্য বহিষ্কৃত নেতা সুজন। তিনি ঘোড়া প্রতীকে পেয়েছেন ২৯ হাজার ৪১ ভোট।

তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা পরিষদ  চেয়ারম্যান মো. রুহুল আমিন কাপ-পিরিচ প্রতীকে পেয়েছেন ২৮ হাজার ২০৮ ভোট। তিনি গত নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন।

বুধবার (২৯ মে) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ করা হয়। ভোটগ্রহণ শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণা করেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আব্দুল লতিফ।

প্রাপ্ত ফলাফল অনুযায়ী ঘোড়া প্রতীক নিয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মোকাররম হোসেন সুজনকে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, ৮৩৩ ভোটের ব্যবধানে মো. রুহুল আমিনকে পরাজিত করেছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোকাররম হোসেন সুজন। 

ফলাফল নিশ্চিত করে গঙ্গাচড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদ তামান্না বলেন, ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছে। কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। পরে গণনা শেষে রাতে ফলাফল ঘোষণা করা হয়।

গঙ্গাচড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির বহিষ্কৃত প্রার্থীসহ সাত জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এছাড়া পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাত ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন প্রার্থী ছিলেন।

৯টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত উপজেলার ১০১টি ভোটকেন্দ্রের ৬১২টি কক্ষে ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন ভোটাররা। এ উপজেলায় একজন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারসহ মোট ভোটার ২ লাখ ৩৯  হাজার ১৫৫ জন। ভোট পড়েছে ৩৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ।

নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান মোকাররম হোসেন সুজন আলমবিদিতর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পদত্যাগ করেন। দলীয় নির্দেশনা অমান্য করে নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ায় তাকে দল থেকে বহিস্কার করে বিএনপি। তিনি রংপুর জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক।

এছাড়া ভাইস চেয়ারম্যান পদে বই প্রতীক নিয়ে ২৪ হাজার ৪৩ ভোট পেয়ে আনারুল ইসলাম মুকুল নির্বাচিত হয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতীকে উপজেলা যুব মহিলা লীগের সভাপতি হাবিবা আক্তার সীমা (ফুটবল) প্রতীকে ১৮ হাজার ১০১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।

সর্বশেষ

জনপ্রিয়