১৬ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ৩০ মে, ২০২৪ - 30 May, 2024
amader protidin

চিলমারীতে ব্রহ্মপুত্র-রৌমারী রুটে চালু হতে যাচ্ছে ফেরী চলাচল

আমাদের প্রতিদিন
1 year ago
126


হাবিবুর রহমান, চিলমারী (কুড়িগ্রাম):

কুড়িগ্রামের চিলমারী উপজেলার ব্রহ্মপুত্র নদ বিচ্ছিন্ন রৌমারী ও রাজিবপুর উপজেলাকে কুড়িগ্রাম জেলা শহরের সাথে এক করতে খুব শিঘ্রই চালু করা হচ্ছে চিলমারী-রৌমারী নৌরুটে ফেরি চলাচল। আগামী জুন মাসের মধ্যেই এই ফেরি সার্ভিস চালু হতে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন,  বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন। এতে করে জেলা শহ‌রে যাতায়া‌তের ‌ভোগা‌ন্তি থে‌কে মু‌ক্তি পে‌তে যা‌চ্ছেন ব্রহ্মপুত্র বি‌চ্ছিন্ন রৌমারী ও রাজীবপুর উপ‌জেলার লক্ষ লক্ষ মানুষ।

আজ দুপুরে চিলমারী-রৌমারী রুটে ফেরি চলাচলের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য বিআইডব্লিউটিএ এবং বিআইডব্লিউটিসি’র একটি প্রতিনিধি দল চিলমারী নদী বন্দর পরিদর্শনে আসেন। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর মূখ্য সচিব মোঃ তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, কুড়িগ্রাম সফরে এসে রৌমারী-রাজিবপুর উপজেলা পরিদর্শন করে জান। সে সময় জেলা শহরের সাথে রৌমারী-রাজিবপুর উপজেলাকে সংযুক্ত করে ব্রহ্মপুত্র নদে একটি ফেরি চালুর জন্য স্থানীয় জনগণ দাবি করেন। মূখ্য সচিব তাঁর সফর সঙ্গী নৌ পরিবহন সচিব ও পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিবকে নির্দেশ দেন। এর প্রেক্ষিতে চিলমারী-রৌমারী নৌরুটে ফেরি চালুর জন্য সিদ্ধান্ত হয়। বুধবার দুপুরে   ব্রহ্মপুত্র নদের চিলমারী-রৌমারী নৌরুটে ফেরি চালুর সম্ভাব্যতা যাচাই কমিটির সদস্যদল চিলমারী নদী বন্দর এলাকা পরিদর্শন করেন এবং সেখান থেকে ফেরি চালুর সুবিধা অসুবিধা নিয়ে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা চেয়ারম্যানসহ সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এ সময় বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন বলেন, রৌমারী থেকে জেলা শহরের যাতায়াতের সুবিধার জন্য ফেরি সার্ভিস চালুর জন্য কয়েকটি ফেরি রুট রয়েছে। আমরা সব কয়েকটি নৌরুট পরিদর্শন করবো। এক্ষেত্রে নদীর গতিপথ, জনচাহিদা এবং ব্রহ্মপুত্র নদের বারবার গতি পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মাথায় রেখেই আমরা ফেরিঘাটের উপযুক্ততা নির্ধারণ করবো। যেহেতু চিলমারী নদী বন্দরকে ঘিরে সরকারের একটি পরিকল্পনা রয়েছে। সেক্ষেত্রে চিলমারী নদী বন্দরকে আমরা বেশি গুরুত্ব দিচ্ছি বলে জানান তারা।

চিলমারী-রৌমারী ফেরি ঘাট সম্ভাবতা যাচাই কমিটির সদস্যগণ চিলমারী নদী বন্দর পরিদর্শন শেষে ব্রহ্মপুত্র নৌপথে রৌমারী যান। সেখানে তাঁরা কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেনের সাথে দেখা করেন। চিলমারী-রৌমারী ফেরিঘাট সম্ভাবতা পরিদর্শনে আসেন বিআইডব্লিউটিএ’র পরিচালক একেএম আরিফ উদ্দিন এবং বিআইডব্লিউটিসি’র পরিচালক(বাণিজ্য) এসএম আশিকুজ্জামান, জেনারেয়াল ম্যানেজার মেরিন ক্যাপ্টেন হাসিমুর রহমান চৌধুরী, ম্যানেজার মেরিন আব্দুল্লাহ আল মামুন, ইঞ্জিনিয়ার সাজিদুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রব মন্ডল এবং চিলমারী উপজেলার চেয়ারম্যান মোঃ রোকুনুজ্জামান শাহীন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুর রহমান প্রমুখ। চিলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাহবুবুর রহমান বলেন, চিলমারী থেকে ফেরি সার্ভিস চালু হলে ব্রহ্মপুত্র নদ দ্বারা বিচ্ছিন্ন রৌমারী-রাজিবপুর উপজেলার মানুষ সহজে কুড়িগ্রাম জেলা শহরের যাতায়াত করার সুযোগ পাবে বলে জানান তিনি। এ ছাড়াও গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জ থানার মানুষ এই ফেরি রুট ব্যবহার করে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সহজে যাতায়াত করার সুযোগ পাবে। কুড়িগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাকির হোসেন জানান, রৌমারী-রাজিবপুরের মানুষের জেলা শহরের সাথে যোগাযোগ রক্ষার জন্য কোন সড়কপথ নেই। প্রতি বছর তাঁরা ব্রহ্মপুত্র নদী দিয়ে জেলা শহরে যাতায়াতের সময় নৌকা ডুবির স্বীকার হয়। তাঁদের দুঃখ লাঘবের জন্য ফেরি সার্ভিস চালু করতে যাচ্ছেন সরকার। আগামী জুন মাসের মধ্যে এই ফেরি সার্ভিস চালু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান তিনি।

 

সর্বশেষ

জনপ্রিয়