৩১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ - ১৫ জুন, ২০২৪ - 15 June, 2024
amader protidin

গুপ্তধন ভেবে মর্টারশেল কাটতে গিয়ে পা গেল লেদ মিস্ত্রীর

আমাদের প্রতিদিন
1 year ago
655


কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:  

গুপ্তধন ভেবে লোহা কাটার গ্রান্ডার মেশিন দিয়ে মর্টার শেল কাটতে গিয়ে বিস্ফোরণে ডান পায়ের গোড়ালী হারাল বাবু মিয়া (৪০) নামে এক লেদ মিস্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সদর ইউনিয়নের দেওয়ানের খামার গ্রামে। আহত বাবু মিয়া ওই গ্রামের মৃত: বাদশা মিয়ার ছেলে।

জানা গেছে, উপজেলার দেওয়ানের খামার গ্রামে বাবু মিয়ার মামা আব্দুল গফুর বীরমুক্তিযোদ্ধা আজিজ কমান্ডারের বাড়ীর পাশে পুকুরে মাটি কাটার সময় একটি লোহার ভারী বস্তু পায়। সেটি গুপ্তধন ভেবে ভাগ্নে লেদ মিস্ত্রী বাবু মিয়ার কাছে গোপনে নিয়ে আসে। পরে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাবু মিয়া রান্নাঘরের দরজা বন্ধ করে রাইস কুকারের লাইন থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে লোহা সদৃশ্য বস্তুটি গ্রান্ডার মেশিন দিয়ে কাটতে যায়। গুপপ্তধন ভাবা মর্টারশেলটি কাটতে গিয়ে বিকট শব্দে বিস্ফারণ ঘটে। পরে মর্টারশেলটি টিনের বেড়া ছিঁড়ে লোহার গেট ফুটো করে পাশর্^বর্তী সাহা ফিলিং ষ্টেশনের বাউন্ডারি ওয়ালে গিয়ে আঁছড়ে পরে। এসময় বাবু মিয়ার ডান পায়ের গোড়ালি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। ঝলছে যায় তার বাম পা’ও। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ভূরুঙ্গামারী স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে, পরে অবস্থার অবনতি ঘটলে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। ঘটনার পর থেকে আত্মগোপনে চলে যায় মামা আব্দুল গফুর। ধারণা করা হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের সময় মর্টারশেলটি অবিস্ফোরিত অবস্থায় পুকুরে পরে ছিল।

ঢাকায় প্রশিক্ষণরত ভূরুঙ্গামারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েম জানান, রাতে আহত রোগীকে হাসপাতালে নেয়া হয়। ইমারজেন্সীতে দ্রæত পায়ে ব্যান্ডেজ বেঁধে রোগীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ভূরুঙ্গামারী সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার মোর্শেদুল হাসান পিপিএম জানান, খবর পাওয়া মাত্র পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এটি পরিত্যক্ত মর্টারশেল ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

  

সর্বশেষ

জনপ্রিয়